কুমিল্লায় ছাত্রলীগের দুগ্রুপের সংঘর্ষ : পুলিশ সহ আহত ৩০

এস জে উজ্জ্বল :

কুমিল্লা জেলা ছাত্রলীগের সদ্য ঘোষিত কমিটি নিয়ে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, সাংবাদিক, ও পথচারীসহ অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছে। মঙ্গলবার রাত ৯টায় শহরের প্রাণকেন্দ্র কান্দিরপাড়ে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এসময় ব্যাপক ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, ইটপাটকেল নিক্ষেপ, গুলিবর্ষণ ও ককটেল বিষ্ফোরিত হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ রাবার বুলেট ও টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে।

ঘোষিত কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের গ্রুপের সাথে সাংগঠনিক সম্পাদক ও পদবঞ্চিতদের মধ্যে ওই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। প্রায় এক ঘন্টার এই সংঘর্ষে পুরো কান্দিরপাড় রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। জানা যায় গত তিনদিন ধরে দুইগ্রুপের এ সংঘর্ষ অব্যাহত রয়েছে।মঙ্গলবার যা চূড়ান্ত সংঘর্ষে রূপ নেয়।

প্রত্যক্ষ্দর্শীরা জনায়, জেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটিকে শুভেচ্ছা জানিয়ে হুইপ মুজিব গ্রুপের নেতাকর্মীরা শহরে মিছিল বের করে। একই সময়ে নতুন কমিটিকে প্রত্যাখ্যান করে পদবঞ্চিতরা মিছিল বের করলে দুইগ্রুপ মুখোমুখি সংঘর্ষে জড়িয়ে পরে। এসময় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ সামাল দিতে পুলিশকে হিমশিম খেতে হয়। নেতাকর্মীরা বেশামাল হয়ে একে অপরের প্রতি হামলা চালাতে থাকে। সংঘর্ষের সময় উভয় গ্রুপের নেতাকর্মীরা প্রকাশ্যে অস্ত্র প্রদর্শন করে। এসময় দোকানপাট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যায় । সংঘর্ষে কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মহিউদ্দিন মাহমুদের মাথায় ইটের আঘাত লাগে। কোতয়ালী থানার এসআই জামান ও কনষ্টেবল এরশাদও আহত হয়। সংঘর্ষে ফটোসাংবাদিক বাহার রায়হান ও দেলোয়ার হোসেন আকাঈদ আহত হয়েছে। আহত ছাত্রলীগ নেতাকর্মী ও পথচারীদের নাম জানা যায়নি। গুলিবিদ্ধদের শহরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
সোমবার জেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঢাকা থেকে কেন্দ্রীয় ভাবে ঘোষণা করা হয়। ১৫ সদস্যের ওই কমিটিতে সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ ১১টি পদ দেয়া হয় হুইপ মুজিব সমর্থিত গ্রুপকে। আর সহ-সভাপতি ও সাংগঠনিক সম্পাদকসহ ৪টি পদ দেয়া হয় বাহার গ্রুপকে। এ নিয়ে দুই গ্রুপের মধ্যে মতভেদ ও সংঘর্ষ শুরু হয়।


Check Also

দেবিদ্বারে অগ্নিকান্ডে ১কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

দেবিদ্বার প্রতিনিধিঃ– কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার ফতেহাবাদ ইউনিয়নের জগন্নাথপুর গ্রামে রান্না ঘরের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরনে ১৫টি ...

Leave a Reply