রাবি’র নাট্যকলা বিভাগের সভাপতির অপসারণ দাবি

মোত্তালিব হোসেন বাধন (রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়) : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা ও সঙ্গীত বিভাগের সভাপতির বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারিতামূলক আচরণ, ক্ষমতার অপব্যবহার, বিভাগের শিক্ষকদেরকে হুমকি, স্বাধীনতা হরণসহ ১৫ অভিযোগ এনে তার অপসারণের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে বিভাগের শিক্ষকরা। গতকাল শুক্রবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিরাজী ভবনে বিভাগের ১৯ শিক্ষকের মধ্যে ১৬ জন শিক্ষক এ সংবাদ সম্মেলন করেন। সম্মেলনে তারা অভিযুক্ত বিভাগীয় সভাপতির প্রতি অনাস্থা জ্ঞাপন করেন এবং তাকে অপসারণ না করা পর্যন্ত তাদের কর্মসূচীতে অটল থাকার ঘোষণা দেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. আতাউর রহমান। সংবাদ সম্মেলনে তারা বর্তমান সভাপাতি অধ্যাপক মলয় ভৌমিকের বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ করেন সেগুলোর মধ্যে রয়েছে- দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই বিভাগের শিক্ষকদেরকে গবেষণার জন্য প্রাপ্ত শিক্ষা ছুটি থেকে বঞ্চিত করণ, শিক্ষকদের মধ্যকার আন্ত:সম্পর্ক বিনষ্ট, পরীক্ষা কমিটি গঠনে বিলম্ব, বিভাগের শিক্ষার্থীদেরকে এম.ফিল-এ ভর্তি না হওয়ার ব্যাপারে উৎসাহিত করণ, শিক্ষার্থীদের চাপ সৃষ্টি, বিভাগের শিক্ষকদের বিভিন্ন বিষয়ে অবহিত না করেই স্ব-উদ্যোগ গ্রহণ এবং তা বাস্তবায়নে অনিহা, শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি সংক্রান্ত নিয়ম অমান্য, বিভাগের অন্য শিক্ষকদের চেম্বার না থাকলেও ক্ষমতার অপব্যবহার করে একাই তিনটি চেম্বার ব্যবহার প্রভৃতি। তারা দাবি করেন বিভাগীয় সভাপতির সাথে বিভাগের সমস্যা নিয়ে একাধিকবার আলোচনা করা হলেও সে ব্যাপারে কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেন নি। তাই আমরা তার প্রতি কোন ধরণের আস্থা রাখতে পারছি না। সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষকরা আরো বলেন, ‘আস্থাহীন বিভাগীয় সভাপতিকে না সরালে আমাদের আন্দোলন অব্যহত থাকবে’। এ সময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিভাগের শিক্ষক- ড. অসিত রায়, ড. শাহরিয়ার হোসেন, ড. মাফরুহা হোসেন, শায়লা তাসমিন, হাবিব জাকারিয়া, কাজী শুসমিন আফসানা, আতাউর রহমান, সনজিদা মইদ, ড. পদ্বিনী দে, ড. আব্দুল আলিম প্রামাণিক, মেহবুব আলম, মনোজ কুমার প্রামাণিক, সলোক হোসেন, মো. আলমগীর হোসেন ও ড. ফারুক হোসেন।
এদিকে বিভাগের শিক্ষার্থীরা শিক্ষকদের দাবির সাথে একাত্মতা ঘোষণা করে গতকাল শুক্রবার বিকেলে সিরাজী ভবনের ১২১ নং রুমে সংবাদ সম্মেলন করেছে। সম্মেলনে তারা বিভাগীয় সভাপতির দ্রুত অপসারণ দাবি করেন। উল্লেখ্য, বিভাগের শিক্ষকরা গত বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টার দিকে বিভাগীয় সভাপতির চেম্বারে তালা ঝুলিয়ে দিয়ে তার অপসারণের দাবিতে চেম্বারের সামনে অবস্থান ধর্মঘট কর্মসূচী পালন করে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে স্মারক লিপি দেয়। এদিকে শিক্ষকদের আহুত কর্মসূচীর কারণে বিভাগের যাবতীয় একাডেমিক কার্যক্রম স্থবির হয়ে পড়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply