সরাইলে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে মামলা ॥ পুলিশের আচরণ রহস্যজনক

আরিফুল ইসলাম সুমন, সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) ॥
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলের মেঘনা নদীতে দু’টি নৌকার মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষে এক শারিরীক প্রতিবন্ধী শিশু মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকার প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে তাদেরকে মামলা দিয়ে হয়রানী করছে মৃত শিশুর পরিবার। এ ঘটনায় পুলিশ তাদেরকে ইন্ধন যোগাচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগীরা।

এলাকাবাসী জানান, গত ১০ মার্চ সকাল ১১টায় সরাইলের মেঘনা নদীতে দ’ুটি নৌকার মুখোমুখী সংঘর্ষে একটি নৌকা উল্টে রুমা (১৫) নামে এক শারিরীক প্রতিবন্ধী কিশোরী মৃত্যুবরণ করে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মেয়ের পিতা বাবুল মিয়া এলাকায় তাদের প্রতিপক্ষ পানিশ্বর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আব্দুল মোমিন, ব্যবসায়ী আব্দুল হামিদ, এরশাদ মিয়া ও সাদ্দাম মিয়া নামের ৪ জনের বিরুদ্ধে সরাইল থানায় মামলা দায়ের করেন।

ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, এলাকায় বিভিন্ন বিষয়ে রুমার পরিবারের সাথে তাদের বিরোধ ও মামলা মোকদ্দমা চলমান থাকায় তাদেরকে ফাঁসাতে তাদের বিরুদ্ধে এ হয়রানিমূলক মামলা দায়ের করা হয়েছে। ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করে বলেন, পুলিশ রহস্যজনক কারণে ঘটনাটি তদন্ত না করেই মামলাটি নথিভূক্ত করে। এমনকি দূর্ঘটনার পর ঘাতক নৌকাটি আটক হলেও এর মালিক বা চালককে পুলিশ গ্রেফতার করেনি।

মামলার আসামী ও পানিশ্বর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আব্দুল মোমিন বলেন, বাবুল মিয়ার পরিবারের সাথে দীর্ঘদিন যাবত আমাদের বিরোধ ও পাল্টাপাল্টি মামলা চলে আসছে। আমাদেরকে ফাঁসাতেই, মেঘনায় নৌকা ডুবিতে বাবুলের কন্যার মৃত্যুর ঘটনায় আমাদেরকে আসামী করেছে। আমরা এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে ন্যায় বিচার প্রত্যাশা করি।

এদিকে গত বুধবার বিকেলে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সরাইল থানার এসআই কামরুজ্জামান মামলা তদন্ত করতে পানিশ্বর গিয়ে বাদীর বাড়িতে দীর্ঘ সময় অবস্থান শেষে সন্ধ্যায় চলে আসে। এলাকার নিরপেক্ষ ৫ শতাধিক লোক জড়ো হলেও তদন্তকারী কর্মকর্তা তাদেরকে কোনকিছু জিজ্ঞেস করেনি।

এ ব্যাপারে সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জহিরুল ইসলাম খানের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, তদন্ত করতে পুলিশকে বাদীর বাড়িতেই যেতে হবে। নিরপেক্ষ লোকদের জিজ্ঞাসাবাদের তেমন প্রয়োজন নেই।

পুলিশ সুপার জামিল আহমেদ বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি। আমি সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে সুষ্ঠুভাবে বিষয়টি তদন্ত করতে নির্দেশ দিয়েছি।

Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply