সরাইলে ইটভাটার ট্রাক্টরের কবল থেকে সড়ক রক্ষার দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ

আরিফুল ইসলাম সুমন, সরাইল (ব্রা‏হ্মণবাড়িয়া) ॥

সরাইল উপজেলার শাহজাদাপুর ইউনিয়নের দেওড়া গ্রামের প্রধান সড়কটি ইটভাটার অবৈধ টাক্টরের কবল থেকে রক্ষার দাবিতে শুক্রবার বিকেলে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে স্থানীয় জনতা। স্থানীয় নলেজ পার্ক কি-ার গার্ডেন আয়োজিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন স্থানীয় প্রবীন ব্যক্তি হাজী সিদ্দিকুর রহমান ভূঁইয়া। বক্তব্য রাখেন, আবু মোরাদ, শফিকুল ইসলাম স্বপন, জুনায়েদ আহমেদ, রফিকুল ইসলাম খোকন, সাংবাদিক মাহবুব খান বাবুল,হিরা ভূঁইয়া, নুরুল আলম কিরন, ইরা মিয়া, সৈয়দ মিয়া, রমুজ উদ্দিন প্রমূখ। বক্তারা বলেন, দেওড়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে পূর্ব পাড়া মাঠ পর্যন্ত সড়কটি গ্রামের প্রধান সড়ক। শাহজাদাপুর, নিয়ামত পুর, ধাউরিয়া ও দেওড়া সহ প্রায় ১০ সহ¯্রাধিক লোক চলাফেরার সড়ক এটি। এছাড়া সমগ্র বিদ্যালয়, মাদ্রাসা ও কলেজ পড়–য়া ছাত্র-ছাত্রীরা এ সড়কে যাতায়াত করে। বর্তমানে সড়টির অবস্থা অত্যন্ত বেহাল। মাঠের পূর্ব পাশে ফাইভ ষ্টার নামক একটি ইটভাটা রয়েছে। যার কোনো বৈধ কাগজপত্র নেই। ওই ইটভাটায় অনুমোদনহীন ৫/৬টি ট্রাক্টর সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এ সড়কে ইট বহন করে। লাইসেন্স বিহীন ড্রাইভার বেপরোয়া গতিতে ট্রাক্টর চালায় নিয়মিত। ফলে সাধারণ জনগণ এ সড়কে ঝুঁকি নিয়ে চলেন। দীর্ঘ তিন বছর যাবৎ এ সড়কটি দিয়ে ইটের ট্রাক্টর চালিয়ে ব্যবহার অনুপযোগী করে ফেলেছেন। ট্রাক্টরের ভয়ে ছাত্র-ছাত্রীরা বিদ্যালয়ে যেতে চায় না। ওদিকে ফসলি জমির উপর দিয়ে ট্রাক্টর যাতায়াতের কারনে ধূলায় ফসলের ব্যাপক ক্ষতি সাধন হচ্ছে। এলাকাবাসী জানায়, ইটভাটার ট্রাক্টরের যন্ত্রণায় আমাদের জীবনে নার্ভিশ্বাস উঠেছে। বাধ্য হয়ে আমরা আন্দোলনের পথ বেচে নিয়েছি। জীবন দিব, তবুও রাস্তা নষ্ট করতে দিব না। এ সড়কে ট্রাক্টর চলাচল বন্ধ করতে আমরা রক্ত দিব। বাঁশ বেধে, রাস্তায় কাটা গাছ ফেলে আমরা সড়কে ট্রাক্টর চলাচল বন্ধ করে দিয়েছি। এ বিষয়ে আমরা প্রশাসনের জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করছি। ১০ সহ¯্রাধিক লোকের আন্দোলনে সংগ্রাম অব্যাহত থাকবে। প্রসঙ্গত সম্প্রতি কোন ধরনের কাগজপত্র না থাকায় ফাইভ স্টার ব্রিকস মিলকে ভ্রাম্যমান আদালত সিলগালা করে দিয়েছে। স্থানীয় চেয়ারম্যানকে উৎপাদন বন্ধ রাখার দায়িত্ব দিয়েছে। কিন্তু আইনের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করে ইটভাটা চালিয়ে যাচ্ছেন মালিকপক্ষ। শাহজাদাপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল ইসলাম খাদেম বলেন, তারা আইন অমান্য করে গায়ের জোরে ইটভাটা চালাচ্ছেন। আমার নিষেধ মানছেন না। আমার চৌকিদার নিষেধ করায় তাকে মারধর করেছে। দেওড়া পশ্চিম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মাজহারুল হক খান সহ অনেক শিক্ষক বলেন, সড়কটি ইট ভাটার ট্রাকের দখলে। ফলে ছাত্র-ছাত্রী বিদ্যালয়ে আসতে চায় না।

Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply