নাঙ্গলকোটে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য বাদীকে হুমকি :হয়রানির অভিযোগ

জামাল উদ্দিন স্বপন:
নাঙ্গলকোট উপজেলার গোমকোট গ্রামের সৌদি আরব প্রবাসী জাকির হোসেনকে সম্পত্তি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে একই গ্রামের আমিনুল ইসলাম সহ তার সঙ্গীয় লোকজন কর্তৃক মারধরের ঘটনায় বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমলী আদালত ৪ এ দায়েরকৃত মামলা তুলে নেওয়ার জন্য হুমকি-ধমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এছাড়া জাকির হোসেনের বিরুদ্ধে বাড়ীর রাস্তা কাটার ভিত্তিহীন অভিযোগ তুলে তাকে হযরানি করার ও অভিযোগ উঠেছে।

মামলার বিবরণ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার গোমকোট গ্রামের আমিনুল ইসলাম ও সফিকুল ইসলাম একই গ্রামের জাকির হোসেনের পিতা দারগ আলীর সম্পত্তি গোপনে জাল দলিল করে দখল করার চেষ্টা করলে, জাকির হোসেনের পিতা দারগ আলী কোর্টে মামলা দায়ের করেন। মামলায় তারা হেরে যাওয়ায় হাইকোর্টে আপিল দাখিল করলে ও তারা আবার হেরে যায়। পরবর্তীতে আবার সম্পত্তি দখলের চেষ্টা করলে বিজ্ঞ আদালতে আবার মামলা দায়ের করা হয়। বর্তমানে মামলাটি বিচারাধীন রয়েছে।

উক্ত সম্পত্তির বিরোধের ঘটনার জের ধরে গত ১৮ জানুয়ারী বিকালে আমিনুল ইসলাম এবং তার সঙ্গীয় লোকজন কর্তৃক জাকির হোসেনের উপর দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে হামলা করে গুরতর আহত করে। তাকে আহত অবস্থায় প্রথমে নাঙ্গলকোট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। তার অবস্থার অবনতি ঘটলে ডাক্তারদের পরামর্শে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে জাকির হোসেন তাকে মারধরের ঘটনায় আমিনুল ইসলাম এবং সফিকুল ইসলাম সহ ৫ জনকে আসামী করে বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমলি আদালতে মামলা দায়ের করেন।

এদিকে, জাকির হোসেনকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য গোমকোট গ্রামের আবুল কালাম গোমকোট কমিউনিটি স্কুল হতে দিদারুল ইসলাম বালিকা দাখিল মাদ্রাসা পর্যন্ত নতুন রাস্তা নির্মাণের ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা এবং ভিত্তিহীন অভিযোগ তুলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে আবেদন করেন। জানা যায়, জাকির হোসেনের পিতা- দারগ আলী এলাকার জনসাধারণের সুবিধার্থে এবং দিদারুল ইসলাম বালিকা দাখিল মাদ্রাসার ছাত্রীদের যাতায়াতের সুবিধার্থে নিজ খরচে তাদের সম্পত্তির উপর একটি নতুন রাস্তা নির্মাণ করেন। ইহা সরকারী রেকর্ডভুক্ত রাস্তা নহে। গোমকোট কমিউনিটি স্কুল হতে সরকারি রাস্তা পর্যন্ত উভয় পার্শ্বে নালজমি ও ভিটি পুকুর পাড় সব সম্পত্তি তাদের ভোগ দখলীয় সম্পত্তি।

এ মিথ্যা, ভিত্তিহীন অভিযোগের বিরুদ্ধে এলাকাবাসী জাকির হোসেনের পক্ষে গণ স্বাক্ষর প্রদান করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে দাখিল করেন।




Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply