ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আবারো নতুন করে বোমা আতংক ॥ বৃষ্টির মত বোমাবাজির পরও পুলিশ নির্বিকার

লিটন চৌধুরী,ব্রাহ্মণবাড়িয়া ১৫ মার্চ ॥
নতুন করে বোমা আতংক দেখা দিয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়। কয়েকদিনে বেশ কিছু জায়গায় বোমাবাজি ও বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় জনমনে দেখা দিয়েছে শংকা ও উদ্বেগ। কারা কোথা থেকে বোমাগুলো আনছে কিংবা কারাইবা বোমার যোগানদাতা এসব বিষয়ে অন্ধকারেই রয়েছে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন। গত রবি ও সোমবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহর ও সদর এলাকায় বৃষ্টির মত বোমাবাজির ঘটনা এখন টক অব দ্যা টাউন এ পরিণত হয়েছে। জানা যায়, গত রবিবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার নির্বাচন চলাকালে সকাল ১১টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজের পেছনে প্রথম দুটি বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। মুহুর্তের মধ্যে শহর জুড়ে বোমা আতংক ছড়িয়ে পড়ে। দুপুর ১টার পর সরকারি কলেজের সামনে শহরের কলেজপাড়া ও দক্ষিণ মৌড়াইলের সন্ত্রাসীদের মধ্যে সংঘর্ষে বৃষ্টির মত বোমা পড়তে থাকে। এসময় শহরের প্রধান সড়কটি দিয়ে যান চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে। শহরের টি,এ,রোড, স্টেশন রোড এলাকায় মানুষ ছুটাছুটি করতে থাকে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, এসময় কমপক্ষে শ’ খানেক বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। সংঘর্ষের পর র‌্যাব সদস্যরা দক্ষিণ মৌড়াইল কবরস্থান এলাকা থেকে ৪টি বোমা উদ্ধার করে। এমনকি এদিন রাতেও কলেজ পাড়া ও মৌড়াইল এলাকায় বোমা ফুটিয়ে আনন্দ উৎসব করা হয়েছে বলে এলাকাবাসী জানায়। গত সোমবার সকাল থেকে সদর উপজেলার বিরাসার গ্রামে বিবদমান কয়েকটি গোষ্ঠির লোকদের মধ্যে স্বশস্ত্র সংঘর্ষের সময়েও উভয়পক্ষই বৃষ্টির মত বোমা ছুড়ে মারে। প্রত্যক্ষদর্শী সদর থানার পুলিশও অর্ধশত বোমা ফুটেছে বলে স্বীকার করেন। হঠাৎ করেই ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এসকল বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা শহরবাসীকে ভাবিয়ে তুলেছে। তবে এতো সব কিছুর পরেও পুলিশ যেন নির্বিকার। পুলিশের সামনে দুই দিন একনাগারে বোমাবাজির ঘটনা ঘটলেও কোনো বোমাবাজকে তারা গ্রেফতার করতে পারেনি। এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার জামিল আহমেদ জানান, বোমাবাজির ঘটনাগুলি আমরা তদন্ত করে দেখছি। কারা, কিভাবে, কোথা থেকে বোমা এনেছে এসব বিষয় খতিয়ে দেখা হচ্ছে।




Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply