র‍্যাব-৯ এর অভিযান : সরাইলে ভেজাল ঘি উৎপাদন কারখানার সন্ধান

আরিফুল ইসলাম সুমন, সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) ॥

সরাইলে র‍্যাব-৯ এর সদস্যরা অভিযান চালিয়ে ভেজাল ঘি উৎপাদন কারখানার সন্ধান পেয়েছে। শনিবার সকালে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. কামরুল ইসলাম তালুকদারের নেতৃত্বে র‍্যাব সদস্যরা ওই ভেজাল কারখানাটি সিলগালা করে দেয়। ভেজাল ঘি উৎপাদন সংশ্লিষ্ট সকল উপকরণ বিনষ্ট করে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও র‍্যাব সূত্রে জানা যায়, শনিবার সকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে র‍্যাব সদস্যরা কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের পার্শ্বে বিশ্বরোড মোড় সংলগ্ন হাজী মতা মিয়ার মার্কেটে অভিযান চালায়। এসময় ওই মার্কেটে নাম ও সাইনবোর্ড বিহীন দুটি দোকানের সামনে একজন লোক অবস্থান করছিল। র‌্যাব এর উপস্থিতি টের পেয়ে পূর্বেই সটকে পড়ে দীর্ঘদিন যাবৎ পরিচালিত ভেজাল ঘি উৎপাদন কারখানার মালিক মো. উছমান মিয়া (৩০)। দোকান দু’টিতে অভিযানকালে বিপুল পরিমাণ কেমিক্যাল, ঘি বাজারজাত করার কৌটা, হরেক রকমের লেবেল, ডালঢার কার্টুন, ভেজাল সয়াবিন তেল ও ঘি তৈরীর অত্যাধুনিক মেশিন পাওয়া যায়। কারখানার মালিক উছমান মিয়া দীর্ঘদিন যাবৎ এখানে ভেজাল ঘি তৈরী করে ভূয়া নিবন্ধন ও বিএসটিআই’র নম্বর সম্বলিত লেবেল ব্যবহার করছেন। এছাড়া ঘি প্রস্তুতকারক বিখ্যাত সুনীল ঘোষ এর স্পেশাল বাঘাবাড়ী ও পাবনার সিরাজগঞ্জের উল্লা পাড়া লেখা নকল লেবেল ব্যবহার করে আসছেন। এ দোকানে বসেই উছমান মিয়া গোপনে ভেজাল ঘি তৈরীর সকল কাজ সম্পন্ন করে চলেছেন। ওই ঘি গুলো দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় চড়া দামে বাজারজাত করে কোটি কোটি টাকা কামিয়ে যাচ্ছেন। অভিযানকালে কারখানার সকল ভেজাল নকল ও অস্বাস্থ্যকর সামগ্রী জনতার উপস্থিতিতে বিনষ্টের পর সিলগালা করে দেয়া হয়। পরে মহাসড়কের পাশে বোরহান মোল্লা মার্কেটে অভিযান চালিয়ে জয় লক্ষী মিষ্টান্ন ভান্ডারকে ৫ হাজার, হোটেল আল যুবরাজ ৫ হাজার টাকা, ইভা ষ্টোর ও ভূঁইয়া কনফেকশনারীকে ১ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়। র‌্যাব-৯ এর কোম্পানি কমান্ডার ও স্কোয়াড্রন লীডার শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, ডালডার সাথে সয়াবিন তেল মিশিয়ে সুনীল ঘাওয়া ঘি নামের মোড়ক লাঘিয়ে উছমান মিয়া মানুষকে দীর্ঘদিন যাবৎ ভেজাল ঘি খাওয়াচ্ছেন। সকাল থেকে অভিযান চালিয়ে তার সকল অবৈধ সামগ্রী ও অস্বাস্থ্যকর খাবার উদ্ধারের পর নষ্ট করে দেয়া হয়েছে। জনগণের জীবন মানের সাথে প্রতারণা করে টাকা রোজগার করছে উছমান। নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. কামরুল ইসলাম তালুকদার বলেন, র‍্যাব-৯ এর সংবাদের ভিত্তিতে এখানে এসে উছমানের ভেজাল কারখানার সন্ধান পেয়েছি। জরিমানার পর কারখানাটি সিলগালা করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।




Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply