সরাইলে পতিতা সহ ইউপি সদস্য আটক

আরিফুল ইসলাম সুমন, সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) ॥
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে পতিতা সহ এক ইউপি সদস্য আটকের পর রহস্যজনক কারণে ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল শুক্রবার দুপুরে উপজেলা সদরের কাচারি পাড়া গ্রামে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী জানায়, শুক্রবার দুপুরে উপজেলার চুন্টা ইউনিয়ন পরিষদের ৬নং ওয়ার্ডের মেম্বার সুবল চন্দ্র দাস (৪৭) তার এলাকার ঝুমা (১৬) নামে এক কিশোরীকে সঙ্গে নিয়ে কাচারি পাড়ার মিনারা বেগমের বাড়িতে আসেন। স্থানীয় জনতা আপত্তিকর অবস্থায় ওই মেম্বারসহ কিশোরীকে আটক করে পুলিশে দেন। স্থানীয় রাশেদ মিয়া (৫০), শিকুল মিয়া (৪৫) ও মুক্তিযোদ্ধা মো. মনির উদ্দিন চুন্টা ইউপির মেম্বার সহ কিশোরী আটকের কথা স্বীকার করে জানান, ঘটনার পর উপস্থিত শতাধিক লোক উত্তেজিত হয়ে পড়েন। পরে তাদের পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। ওদিকে অভিযোগ উঠেছে, এলাকার কতিপয় তদবিরবাজ লোকজন রহস্যজনকভাবে ওই মেম্বারসহ কিশোরীকে থানা থেকে ছাড়িয়ে নিয়ে যান । চুন্টা ইউপি চেয়ারম্যান মো. হাবিবুর রহমান বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে সুবল দাস মেম্বারের এক আত্মীয়ের সঙ্গে নারী সংক্রান্ত ঝামেলা চলছে একটি মেয়ের। বিষয়টি আমি খোঁজ নিচ্ছি। এ ব্যাপারে সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জহিরুল ইসলাম খানের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি সদুত্তর দিতে পারেননি। কিছুক্ষণ চুপ থেকে তিনি বিষয়টি পত্রিকায় না লেখার জন্য অনুরোধ করেন। অভিযুক্ত ইউপি সদস্য সুবল চন্দ্র দাসের মুঠো ফোনে (০১৭৩২৩২৯৪৯১) যোগাযোগ করলে সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে কোন কথা না বলেই ফোনটি বন্ধ করে দেন।




Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply