ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সোনালী ব্যাংক প্রধান শাখায় অর্থ কেলেংকারী

লিটন চৌধুরী,ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২/৩/১১ :
রাষ্ট্রয়াত্ব অর্থ লগ্নীকারী প্রতিষ্ঠান সোনালী ব্যাংক ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কুমারশীলমোড়স্থ প্রধান শাখায় সরকারী পেনশন ভোগীদের বিপুল পরিমান অর্র্থ অনিয়মের ঘটনায় ২ কর্মকর্তাকে ষ্ট্যান্ড রিলিজ করা হয়েছে। এ ঘটনায় এখানে তোলপাড় চলছে। ব্যাংকের কেন্দ্রীয় কার্যালয় ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জোনাল অফিস থেকে পৃথক দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তবে কর্মকর্তারা বলছেন, তদন্ত ছাড়া কিছইি বলা যাবে না। বদলীকৃতরা হল প্রধান শাখার ক্যাশ অফিসার মিজানুর রহমান ভূইয়া, একই পদ ধারী খলিলুর রহমান। তাদেরকে মাদারীপুর ও ভোলায় বদলী করা হয়েছে।

সংশিষ্ট সূএ জানায়, এ শাখার সরকারী পেনশন ভোগীদের অর্থ নিয়ে কেলেংকারী কারনে ইতিমধ্যেই ব্যাংকের এমডি স্কোয়াডের ২ সদস্যের একটি টিম সরজমিন তদন্ত করে গেছেন। এরপর পর দুই কর্মকর্তাকে বদলী করা হয়। সে সাথে সোনালী ব্যাংকের স্পেশাল অডিট বিভাগ থেকে ৩ (তিন) সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। এরা হলো সিনিয়র এক্সিকিউটিভ অফিসার শীষ আহমদ আইওবি, সিনিয়র অডিটর মোঃ ইয়াছিন শাহ ও মোঃ রুহুল আমিন।

এদিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জোনাল অফিস থেকে ৩ (তিন) সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এরা হলেন সিনিয়র এক্সিকিউটিভ অফিসার আব্দুল ওয়াহিদ, এক্সিকিউটিভ অফিসার মোঃ আবুল বাসার ও জুনিয়র অফিসার হুমায়ুর কবীর খান। উলেখ্য, এ শাখায় দীর্ঘ দিন ধরে পেনশন ভোগীদের অর্থ অনিয়ম করে আসছিল। অনুসন্ধানে জানাযায়, সোনালী ব্যাংকের প্রধান শাখায় একটি অভিযোগ প্রেরণ করা হয়। ঘটনা জানাজানির পর তদন্ত শুরু হয়। এতে আরো কর্মকর্তা জড়িত রয়েছে। প্রাথমিক তদন্তের পরিপ্রেক্ষিতে ২৮ ফেব্র“য়ারী দু’জন কর্মকর্তাকে ষ্ট্যান্ড রিলিজ করা হয়। সংশিষ্ট একটি সূত্র জানায়, অভিযুক্ত দু’ কর্মকর্তা দীর্ঘ এক যুগেরও বেশি ধরে এ শাখায় ক্যাশে কাজ করছেন। পেনশনভোগীদের পেনশনের টাকা নিয়ে অনিয়মসহ তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে।




Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply