ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জাতির জনকের ছবি সম্বলিত ব্যানার ছিড়ে ফেলা হয়েছে

লিটন চৌধুরী (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) ১মার্চ :

ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের প্রধান কেন্দ্রস্থল ফকিরাপুলের উপরের জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ক্যাপ্টেন (অবঃ) এবি তাজুল ইসলাম ও সদর আসনের প্রয়াত সংসদ সদস্য এডঃ লুৎফুল হাই সাচ্চুর ডিজিটাল ফেষ্টুন রাতের আধারে কে বা কারা ছিড়ে ফেলে দিয়েছে। এ ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে।

গতকাল সোমবার গভীর রাতে শহরের প্রধান সড়কের ফকিরাপুল ব্রীজের উপর বঙ্গবন্ধু, শেখ মজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ক্যাপ্টেন (অবঃ) এবি তাজুল ইসলাম, প্রয়াত সংসদ সদস্য এডঃ লুৎফুল হাই সাচ্চুর ছবিসহ ডিজিটাল ফেষ্টুন ব্যানার ছিড়ে ফেলে দেয়া হয়েছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানা সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

অভিযোগ রয়েছে, একই দলের প্রয়াত নেতা সংসদ সদস্য এডঃ লুৎফুল হাই সাচ্চুর প্রতিপক্ষের সমর্থনকারীরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে। জনপ্রিয় প্রয়াত সংসদ সদস্য এডঃ লুৎফুল হাই সাচ্চুর নাম মুছে ফেলার জন্য এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি হাজী মাহমুদুল হক ভূইয়া অভিযোগ করেন, এ ধরনের ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটানোর সময় সদর থানার কতিপয় পুলিশ ঘটনাস্থলে ছিলেন। সন্ত্রাসীরা ফেষ্টুন ব্যানার ছিড়ে সদর থানার অভ্যন্তরে চলে যায়। জাতিরজনক, প্রধানমন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও সবচাইতে জনপ্রিয় প্রয়াত সংসদ সদস্যের ছবি সম্মিলিত বিরাট আকারের ফেষ্টুন ও ব্যানার ছিড়ে ফেললেও পুলিশ প্রশাসন এ ব্যাপারে কোন প্রকার পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। ফলে বর্তমান পুলিশ প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে সর্ব সাধারণের মাঝে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

সদর থানা সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটলেও পুলিশ এ বিষয়ে কিছুই জানেন না। প্রশাসনের বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থাও এ ব্যাপারে অবগত নয় বলে পুলিশ প্রশাসন সূত্রে জানায়।

এ ব্যাপারে সদর থানার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার সাংবাদিকদের জানান, পুলিশ প্রশাসনের ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্য এ রকমের ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে। তদন্ত সাপেক্ষে এ ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত খোঁজে বের করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।




Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply