সরাইলে সরকারি নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে পুটিয়া নদীতে বাঁধ দিয়ে পানি সেচ করছে ক্ষমতাসীনরা

আরিফুল ইসলাম সুমন, সরাইল :

পুটিয়া নদীতে বাঁধ দিয়ে পানি সেচ করা হচ্ছে
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার কুইট্টা হাওর বিল এলাকায় পুটিয়া নদীতে অবৈধভাবে বাঁধ নির্মাণ করে মৎস্য নিধন করছে ক্ষমতাসীন দলের স্থানীয় নেতা পরিমল দাস। এলাকার মৎস্যজীবি ও কৃষকদের লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে সরকারিভাবে এতে বাধা-নিষেধ থাকলেও আ’লীগ নেতা পরিমল দাস বৃদ্ধাগুলি প্রদর্শন করে বর্তমানে পুটিয়া নদীতে ডিজেল চালিত সেলু মেশিন দিয়ে পানি সেচ করে যাচ্ছেন। এতে হাওর এলাকায় কৃষি কাজে পানি সেচের সঙ্কট দেখা দিয়েছে। গতকাল রবিবার সরেজমিন পুটিয়া নদী এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, নদীর পানি শুকিয়ে যাওয়ায় কৃষি কাজের ব্যঘাত সৃষ্টি হয়েছে। হাওর এলাকার প্রায় ৩’শ একর জমির বোরো ফসল হুমকির মূখে। বিভিন্ন জাতের ছোট ছোট পোনা মাছ শুকনায় পড়ে পচন ধরেছে। চারিদিকে র্দূগন্ধ ছড়াচ্ছে।

জানা যায়, আ’লীগ নেতা পরিমল দাস মৎসজীবি সমিতির মাধ্যমে হাওর এলাকার জলমহাল ইজারা নেন। তিনি সরকারি নিয়মনীতি উপেক্ষা করে পুটিয়া নদীতে বাঁধ নির্মাণ করেন এবং নির্বিচারে মৎস্য নিধন করতে থাকে। এ ঘটনায় উপজেলার নোয়াগাঁও মধ্যপাড়া মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি লিমিটেডের সভাপতি মো. শাহাজাহান মিয়া উপজেলা প্রশাসনে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ প্রমাণিত হলে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. মনিরুজ্জামান গত বছরের ১৪ নভেম্বর তার দফতরের ১০৩৯ নং স্মারকে ইজারাদার পরিমল চন্দ্র দাসকে একটি নোটিশ দেন। নোটিসে উল্লেখ, পুটিয়া নদীর উপর বাঁধ দিয়ে মৎস্য আহরন সরকারি নদী ব্যবস্থাপনা নীতিমালার ৪ঠা সেপ্টেম্বর ১৯৯৫ খ্রিঃ তারিখের ভূমি/৭-বিবিধ-১১/৯৫/৫৭৬ নং স্মরক মোতাবেক অবৈধ ও বে-আইনী। সে প্রেক্ষিতে সরকারি খোলা নদীর উপর অবৈধভাবে নির্মিত বাঁধ ১ দিনের মধ্যে সরিয়ে নিতে। কিন্ত প্রভাবশালী ওই আ’লীগ নেতা নদীর বাঁধ না সরিয়ে উপরন্তু নদীর পানি সেচ করছে। হাওর এলাকার বেশক’জন কৃষক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে পরিমল দাস নদীর পানি সেচ করছে। পুলিশ এসে বাধা দিয়েছিল। কিন্তু কোনো ফল হয়নি। পানির অভাবে আমাদের জমির ফসল নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়েছে। আ’লীগ নেতা পরিমল দাস বলেন, আমরা (মৎস্যজীবি সমিতির লোকজন) জলমহাল ইজারা নিয়েছি। সরকারি নিয়মনীতি মেনেই মৎস্য নিধন করছি। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. হেলাল উদ্দিন বলেন, বিষয়টি আমি জেনেছি। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।




Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply