বিশ্বকাপ ক্রিকেটে ৫ম সর্বনিম্ন স্কোর কেনিয়ার

স্পোর্টস ডেস্ক, 20 ফেব্রুয়ারি (কুমিল্লাওয়েব ডট কম) :
মাত্র ৬৯ রান করে বিশ্বকাপে পঞ্চম সর্বনিম্ন স্কোরের লজ্জায় এখন কেনিয়ার । এর আগে কেনিয়ার সর্বনিম্ন স্কোর ছিল ১০৪। সেটি ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ২০০৩ সালের বিশ্বকাপে।

রবিবার ২০ ফেব্রুয়ারী বিশ্বকাপের দ্বিতীয় ম্যাচে চেন্নাইয়ের চিদাম্বরম স্টেডিয়ামে নিউজিল্যান্ডের বেনেট, ওরাম, সউদির বিধ্বংসী বোলিংয়ে ২৩.৫ ওভারে মাত্র ৬৯ রানে অলআউট হয়ে যায় কেনিয়া।

বিশ্বকাপ ক্রিকেটে সর্বনিম্ন রানের রেকর্ড হলো কানাডার। ২০০৩ সালের বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৩৬ রান করে কানাডা। একই আসরে দ্বিতীয় সর্বনিম্ন স্কোর করে (১৪ ওভারে ৪৫ রান) নামিবিয়া অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। তৃতীয় সর্বনিম্ন স্কোরটিও কানাডার। ১৯৭৯ এর বিশ্বকাপ ক্রিকেটে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৪০ ওভারে কানাডা ৪৫ রান সংগ্রহ করে। এছাড়া ১৯৯৯ সালের বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৬৮ রান করে পঞ্চম সর্বনিম্ন স্কোরটি করে স্কটল্যান্ড।

এদিকে, আজকের ম্যাচে নিজের একদিনের ক্যারিয়ারের সেরা বোলিং করেন হামিশ বেনেট। পাঁচ ওভারে ১৬ রান দিয়ে ৪ উইকেট তুলে নেন তিনি। ফলে ম্যাচ সেরাও হন বেনেট। খেলা শেষে বেনেট বলেন, ‘আমরা বেশ কিছুদিন ধরে একটা ভালো জয়ের অপেক্ষায় ছিলাম। বিশ্বকাপে এমন বলিং করতে পেরে আমি খুশি।’

কেনিয়ার অধিনায়ক বলেন, ‘এমন একটা হার খুবই হতাশার। আমরা ব্যাটিংয়ে ভালো করতে পারিনি। নিউজিল্যান্ডের বোলারদের কৃতিত্ব দিতে চাই।’




মাত্র ৬৯ রান করে বিশ্বকাপে পঞ্চম সর্বনিম্ন স্কোরের লজ্জায় পড়ল কেনিয়া। এর আগে কেনিয়ার সর্বনিম্ন স্কোর ছিল ১০৪। সেটি ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ২০০৩ সালের বিশ্বকাপে।

রবিবার বিশ্বকাপের দ্বিতীয় ম্যাচে চেন্নাইয়ের চিদাম্বরম স্টেডিয়ামে নিউজিল্যান্ডের বেনেট, ওরাম, সউদির বিধ্বংসী বোলিংয়ে ২৩.৫ ওভারে মাত্র ৬৯ রানে অলআউট হয়ে যায় কেনিয়া।

বিশ্বকাপ ক্রিকেটে সর্বনিম্ন রানের রেকর্ড হলো কানাডার। ২০০৩ সালের বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৩৬ রান করে কানাডা। একই আসরে দ্বিতীয় সর্বনিম্ন স্কোর করে (১৪ ওভারে ৪৫ রান) নামিবিয়া অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। তৃতীয় সর্বনিম্ন স্কোরটিও কানাডার। ১৯৭৯ এর বিশ্বকাপ ক্রিকেটে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৪০ ওভারে কানাডা ৪৫ রান সংগ্রহ করে। এছাড়া ১৯৯৯ সালের বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৬৮ রান করে পঞ্চম সর্বনিম্ন স্কোরটি করে স্কটল্যান্ড।

এদিকে, আজকের ম্যাচে নিজের একদিনের ক্যারিয়ারের সেরা বোলিং করেন হামিশ বেনেট। পাঁচ ওভারে ১৬ রান দিয়ে ৪ উইকেট তুলে নেন তিনি। ফলে ম্যাচ সেরাও হন বেনেট।

খেলা শেষে বেনেট বলেন, ‘আমরা বেশ কিছুদিন ধরে একটা ভালো জয়ের অপেক্ষায় ছিলাম। বিশ্বকাপে এমন বলিং করতে পেরে আমি খুশি।’

কেনিয়ার অধিনায়ক বলেন, ‘এমন একটা হার খুবই হতাশার। আমরা ব্যাটিংয়ে ভালো করতে পারিনি। নিউজিল্যান্ডের বলারদের কৃতিত্ব দিতে চাই।’




Check Also

মুস্তাফিজের বিশ্ব রেকর্ড

  কুমিল্লাওয়েব ডেস্ক :– বিশ্ব ক্রিকেটের ইতিহাসের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ওয়ানডে ও টেস্ট দুই ধরনের ...

Leave a Reply