আশুগঞ্জ সারকারখানায় বিভিন্ন অনিয়ম

লিটন চৌধুরী,ব্রাহ্মণবাড়িয়া ১৩.০২.১১ :
আশুগঞ্জ সারকারখানায় বিভিন্ন অনিয়ম ও সমস্যার দরুন আগামী ভরা মওসুমে কৃষকের মাঝে যথাসময়ে সার সরবরাহে যথেষ্ট বিঘœ সৃষ্টি হওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে।

সঠিক সময়ে সার সরবরাহ করা না গেলে উৎপাদন কম হওয়ার শংকা প্রকাশ করেছে এতদসংক্রান্ত গঠিত তদন্ত কমিটি।

আশুগঞ্জ সারকারখানার বিভিন্ন অনিয়ম ও সমস্যা নিয়ে গত ডিসেম্বর মাসে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভায় বিস্তারিত আলোচনা হয়। সেই প্রেক্ষিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোঃ মোজাম্মেল হক ও বাংলাদেশ ফার্টিলাইজার এসোসিয়েশন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার সভাপতি মোঃ রুহুল আমিন ভূইয়াকে নিয়ে দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়্। তদন্ত কমিটি গত ২৩ জানুয়ারি সরেজমিনে সারকারখানার সেলস ম্যানেজার মোঃ হাবিবুর রহমানের উপস্থিতিতে তদন্ত করে।

তদন্তে বিভিন্ন অনিয়ম ও সমস্যার ধরা পড়ে। এগুলোর মধ্যে রয়েছে ইউরিয়া সার খোলা আকাশের নীচে বস্তা বন্দি করা হচ্ছে ফলে ইউরিয়া সারের মুল নাইট্রোজেন বায়ূর সাথে মিশে যাচ্ছে। চাহিদার তুলনায় সার সরবরাহ খুবই কম। যতটুকু সরবরাহ করা হচ্ছে ডিলারদের নিজস্ব ব্যবস্থাপনায়। দৈব চয়ন পদ্ধতিতে ৩টি সারের বস্তা ওজন নিয়ে যথাক্রমে ৪৫, ৪৭ ও ৪৮ কেজি সার পাওয়া যায়। কিন্তু প্রতি বস্তায় সার থাকার কথা ৫০ কেজি। বার্জারপয়েন্ট সার সরবরাহ খুবই নগন্য। প্রতিদিন ৩ হাজার থেকে সাড়ে ৩ হাজার মেট্রিক টন সার সরবরাহের কথা থাকলেও সরবরাহ করা হচ্ছে মাত্র ১ হাজার ২০০ থেকে ১হজার ৫০০ মেট্রিক টন। যা প্রয়োজনের তুলনায় খুবই কম। সারের বস্তার ভিতরে পলিথিনের কোটিন না থাকায় পরিবহনের সময় সার পড়ে যায়। কারখানার শ্রমিক সংখ্যা কম থাকায় ডিলারদের মাঝে সরবরাহ বিলম্ব হচ্ছে। ফলে এক মাসের ডিলাদের মাঝে বরাদ্দকৃত সার অন্য মাসে সরবরাহ করা হচ্ছে।




Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply