মুরাদনগরে বিএনপি’র ৩/৪শ’ লোককে আসামী করে মামলা :গ্রেফতার-৭

স্টাফ রিপোর্টার, মুরাদনগর :
মুরাদনগরে পুলিশের উপর হামলার ঘটনায় ৭ জনকে গ্রেফতার পূর্বক সোমবার দুপুরে কোর্ট হাজতে সোপর্দ করেছে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে উপজেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক মোল্লা মুজিবুল হক ও সাংগঠনিক সম্পাদক আমিরুল ইসলামসহ যুবদল এবং ছাত্রদলের নামধারী ৩২ জনসহ ৩/৪শ’ লোককে আসামী করে থানায় মামলা করেছেন। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রাখতে উপজেলা সদরের গুরত্বপূর্ন স্থানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ নিয়ে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। অনেকে গ্রেফতার আতংকে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে।

জানা যায়, রোববার সন্ধ্যায় হরতালের সমর্থনে উপজেলা বিএনপির উদ্যোগে একটি মিছিল বের করা হলে এতে প্রথমে পুলিশ বাঁধা দেয়। পরে হরতাল বিরোধীরা মিছিলে হামলা ও গুলি চালায়। এতে থানার এস. আই অমর চন্দ্র দাস ও ৩ পুলিশ সদস্যসহ বিএনপি এবং এর অঙ্গ সংগঠনের অন্তত ১০ নেতা-কর্মী ও সমর্থক আহত হয়েছে। পরে তারা বিএনপি কার্যালয়ের চেয়ার-টেবিল ভাংচুর করে। এ সময় উভয় দলের নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের মাঝে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ ১৫ রাউন্ড ফাঁকা গুলি করেছে। এ সময় হরতাল বিরোধীরাও প্রায় ২০০ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়ে এলাকায় আতংক সৃষ্টি করে। প্রায় ২ ঘন্টা ব্যাপী এ তান্ডবে এলাকার আকাশ-বাতাস ভারি হয়ে উঠে। তখন মুরাদনগর থেকে রামচন্দ্রপুর, হোমনা ও ইলিয়টগঞ্জগামী সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে বিভিন্ন স্থান থেকে আসা লোকজনেরা চরম ভোগান্তির শিকার হয়। উক্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে রোববার রাতে ও সোমবার সকালে ব্যবসায়ী, স্কুল ছাত্র ও বিএনপি’র কর্মী এবং সমর্থকসহ ১৫ জনকে আটক করেছে, এর মধ্যে ৮ জনকে ছেড়ে দেয়। এ ঘটনায় পুশিশের এস আই মঞ্জুরুল কাদের বাদী হয়ে পুলিশের কর্তব্য কাজে বাধাঁ ও আহত করার অপরাধ জনিত কারনে ৩/৪শ’ লোককে আসামী করে রোববার রাতেই থানায় একটি মামলা করেছেন (মামলা নং-০৮, তাং- ০৬/০২/১১ইং, ধারা-১৪৭/১৪৮/১৪৯/৩৩২/৩৩৩/৩৫৩/ ৪৩৬/ ৪২৭/৫০৬ দ: বি:)। উক্ত মামলায় গ্রেফতারকৃতরা হলেন, মাসুদ (২৬), আব্দুল বাতেন (২২), মতি মিয়া (৫০), সবুজ (১৮), জয়নাল (২৪), শরীফুল (২০) ও ওমর ফারুক (২০)। তাদেরকে সোমবার দুপুরে কমিল্লার আদালতে প্রেরণ করলে বিজ্ঞ চীপ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্্েরট তাদের জামিনের আবেদন না মঞ্জুর করে জেল-হাজতে প্রেরন করেন।

মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা আব্দুস সবুর জানান, উক্ত ঘটনায় সন্দেহমূলক ১৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল, যাচাই-বাছাই শেষে ৮ জনকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। অভিযুক্ত অপর আসামীদের কোর্টে চালান করা হয়েছে, পলাতক আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।





Check Also

দেবিদ্বারের সাবেক চেয়ারম্যান করোনা আক্রান্ত হয়ে ঢাকায় মৃত্যু: কঠোর নিরাপত্তায় গ্রামের বাড়িতে লাশ দাফন

দেবিদ্বার প্রতিনিধিঃ কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার ভাণী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান (৫৫) করোনায় আক্রান্ত ...

Leave a Reply