সরাইলে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কিশোরীকে ধর্ষন :ধামাচাপা দিতে প্রভাবশালীমহল তৎপর

আরিফুল ইসলাম সুমন, সরাইল(ব্রা‏হ্মণবাড়িয়া) :
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক কিশোরী মেয়েকে ধর্ষন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ধর্ষক সেলিম সহ ৫ জনের বিরুদ্ধে সরাইল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে।

পুলিশ,গ্রামবাসী ও মামলার এজহার সূত্রে জানা যায়, জেলার নাসিরনগর উপজেলার জয়দরকান্দি গ্রামের শাহজাহান মিয়ার পুত্র মো. সেলিম মিয়া (২৬) সরাইল উপজেলার সদর ইউনিয়নের আরিফাইল গ্রামের মিন্টু মিয়ার ভাগিনা। মামার বাড়িতে থেকে সেলিম সরাইল বাজারে একটি ফ্লেক্সিলোডের দোকান পরিচালনা করত। একই ইউনিয়নের সৈয়দটুলা গ্রামের এক দরিদ্র দিনমজুরের কিশোরী মেয়ে ৫/৬ মাস আগে ফ্লেক্সিলোডের জন্য সেলিমের দোকানে যায়। এর পর থেকে ওই কিশোরীকে মুঠোফোনে উত্ত্যক্ত করতে থাকে সেলিম। এক পর্যায়ে উভয়ের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত ২৭ জানুয়ারি বিকালে সেলিম দিনমজুরের ওই কিশোরী মেয়েকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বাড়ি থেকে বের করে নিয়ে যায়। জেলা সদরের একটি হোটেলে তাকে আটকে জোরপূর্বক ধর্ষন করে। পরে তাকে নিয়ে আসে সেলিমের মামা মিন্টুর বাড়িতে । সেখানে পর পর দুই দিনের সালিশি সভায় উভয়ের মধ্য বিয়ের সিদ্ধান্ত হয়। পরে সেলিম কৌশলে পালিয়ে যায়। এর পর থেকে ধর্ষক সেলিমের প্রভাবশালী আত্মীয়-স্বজন বিষয়টি ধামা চাপা দিতে ওঠে পড়ে লেগেছে। অসহায় ধর্ষিতার পরিবার ৩১ জানুয়ারি মামলা দায়ের করেন।

সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুভাষ চন্দ্র সাহা বলেন, আসামিদের গ্রেফতার ও মামলার তদন্ত চলছে।

Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply