সরাইলের সতীদাহ মন্দির ৩৮ বছর পর দখলে নিল হিন্দু সমাজ

লিটন চৌধুরী, ব্রা‏হ্মনবাড়িয়া :
ব্রা‏হ্মণবাড়িয়ার সরাইলে শত বছরের পুরোনো সতীদাহ নামক হিন্দু সম্প্রদায়ের এক মন্দিরের জায়গা দখল হওয়ার দীর্ঘ ৩৮ বছর পর গতকাল শনিবার পুনরায় দখলে নিয়েছে স্থানীয় হিন্দু সমাজের লোকজন। মন্দিরের জমির দখলীয় মালিক মিলন মিয়া বলছেন তার মরহুম পিতা প্রায় ৪৭ বছর পূর্বে জমির মালিক হিন্দু সম্প্রদায়ের হরমনি তলাপাত্র এর কাছ থেকে সম্পত্তি কিনেন।

এলাকাবাসী জানায়, সত্য যুগে উপজেলার কালীকচ্ছ মনিরবাগ গ্রামের বাসিন্দা বসন্ত কুমার তলাপাত্র পরলোকগমন করেন। ওই সময়ে সতীদাহ প্রথা থাকায় স্বামীর মৃত দেহের সঙ্গে জীবিত বিধবা স্ত্রীকেও দাহ করা হয়। সত্য যুগ বিলুপ্ত হওয়ার পর ঘটনাটিকে স্মৃতিময় করে রাখতে জমিটিতে একটি সতীদাহ মন্দির নির্মাণ করা হয়। হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন ওই মন্দিরে পূজাসহ নানা ধর্মীয় কর্মকা- পালন শুরু করেন। স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে ওই মন্দিরের জমি বেহাত হয়ে যায়। বিভিন্ন সরকারের আমলে স্থানীয় হিন্দু সমাজ মন্দিরের জমিটি দখলে নিতে চেষ্টা করলেও কোনো ফল হয়নি।
গতকাল শনিবার সকালে মনিরবাগ গ্রামের হিন্দু সমাজের লোকজন মন্দিরের জমিটি দখলে নেন। এসময় জমির দখলীয় মালিক প্রথমে বাধা দিলেও পরে নানান মহলের চাপে চুপ থাকেন। স্থানীয় হিন্দু সমাজের দেবেন্দ্র দাস (৭৫) জানান, দীর্ঘ ৩৮ বছর পর আজ প্রশাসনের সহযোগিতা ছাড়াই মন্দিরের জমি দখলে নিয়েছি। তবে এতে এলাকার জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতা রয়েছে। সুরেশ চন্দ্র দাস (৮৫) জানান, মন্দিরের জমিতে ৪৫ বছর আগে পুজা ও বৌ মেলা হতো। আমাদের বৌ-ঝিরা মনের বাসনা পূরণে এ মন্দিরে মানত করত। ভূমিদস্যুরা দীর্ঘ বছর যাবত মন্দিরের জমিটি দখল করে রাখে। সূর্য কুমার দাস(৭৭) জানান, সতীদাহ মন্দির আমাদের ঐতিহ্য। যে কোনো মূল্যে এই ঐতিহ্য রক্ষা করব।

Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply