পাম অয়েল চাষের মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক অবস্থার পরিবর্তন সম্ভব

সাকলাইন যোবায়ের :

পাম অয়েলের দেশ মালয়েশিয়ার চেয়ে বাংলাদেশের আবহাওয়া ও মাটির ্উর্বরতা ভাল হওয়ায়। বাংলাদেশ পাম অয়েল চাষ বেশি উপযোগী। মালয়েশিয়া একঁকাদি পাম ফলের ওজন ২০-২৫ কেজি। কিন্তু বাংলাদেশে তা প্রায় ৪০-৮০ কেজি পযর্ন্ত হয়। ডিটারজেন্ট,গ্রিজ, মিল্ক পাউডার ইত্যাদিতে ব্যবহার করা হয়। এছাড়া হাতে তৈরি তৈল দ্বারা ডিজেল ইঞ্জিন ও চালানো যায়। ১ লিট্রা পাম বায়োডিজেল দ্বারা ৫ ঘন্টা সেচযন্ত্র চলে। বাড়ি বাড়ি পাম অয়েল গাছ চাষ হলে দেশে অর্থনৈতিক বিপ্লব ঘটবে মানুষের অর্থ ভাব দূর হবে। তুর ডেভেলপমেন্ট লিমিটেডের পাম অয়েল চাষ প্রজেক্টর রিজওনাল ও এরিয়া ম্যানেজারদের উন্ন্য়ন সভায় ত্রসব বক্তব্য রাখা হয়। উন্ন্য়ন সভায় সভাপতিত্ব করেন কোম্পানীর অর্থ পরিচালক কাজী জাইদুল হোছাইন ইসহাক। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কোম্পানীর চেয়ারম্যন মো: মাছুম বিল্যাহ মিয়াজী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডা.এম এ কাদের খান। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন লেখক ও সংগঠক গাজী জাহাঙ্গীর আলম জাবির, পাম অয়েল চাষ প্রজেক্টের জি এম সালাহউদ্দিন সেলিম। উন্নয়ন সভায় কুমিল্লা, বি-বাড়ীয়া, চাদঁপুর মুন্সিগজ্ঞ, নারায়নগজ্ঞ থেকে কর্মরত ম্যানেজার বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন,পাম অয়েল চাষ প্রজেক্টের আর এম মো: তারিকুল ইসলাম শিবল

Check Also

মিনি ওয়াক-ইন-সেন্টারের মাধ্যমে রবি’র গ্রাহক সেবা সম্প্রসারণ

ঢাকা :– গ্রাহক সেবাকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে মোবাইলফোন অপারেটর রবি আজিয়াটা লিমিটেড সম্প্রতি মিনি ওয়াক ...

Leave a Reply