কচুয়া পৌরসভায় বিএনপি’র একক প্রার্থী ॥ আওয়ামীলীগের একাধিক

এ কে এম শাহেদ, চাঁদপুর থেকে :

উপরে বা থেকে , আহসান হাবিব, নুরুল আজাদ, পাঞ্জল, রুহুল আমিন, নিচে মোস্তফা কামাল, দেওয়ান আব্দুল গণি, গোপাল চন্দ্র পোদ্দার ও হুমায়ুন কবির
চাঁদপুরে ৭টি পৌরসভার মধ্যে ৬টি পৌরসভার নির্বাচন আগামী ১৮ জানুয়ারি। একটি পৌরসভার নির্বাচন হাইকোর্টে মামলা থাকার কারণে স্থগিত রয়েছে। বাকি ৬টি পৌরসভা নির্বাচনের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ পৌরসভা হচ্ছে কচুয়া পৌরসভা। এই পৌরসভায় ১৫ জানুয়ারি থেকে সেনবাহিনী মোতায়েন করা হচ্ছে। এদিকে আলোচিত এই পৌরসভার নির্বাচনকে ঘিরে শেষ মুুহুর্তে প্রার্থীদের চোখে এখন আর ঘুম নেই। দিন-রাত তারা ভোটারদের কাছে গিয়ে দোয়া ও ভোট চাচ্ছে। কনকনে শীত উপেক্ষা করে প্রার্থীরা ছুটে বেড়াচ্ছে ভোটারদের পেছনে পেছনে। কচুয়া পৌরসভায় বিএনপি’র একক প্রার্থী হিসেবে এখানে বর্তমান মেয়র হুমায়ুন কবির প্রাধানের (কাপ-পিরিচ) ব্যাপক জনপ্রিয়তা রয়েছে। অন্যদিকে আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী আহসান আলী প্রধানের (টেলিভিশন) প্রধান সমস্যা হচ্ছে আওয়ামীলীগের একাধিক প্রার্থী। এখানে আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন ৬ জন। এরা হচ্ছেন- মোঃ মোস্তফা কামাল (দোয়াত-কলম), মোঃ হারুনুর রশিদ (তালা-চাবি), গোপাল পোদ্দার (জাহাজ), আহসান হাবীব প্রাঞ্জল (আনারস), নুরুল আজাদ (মাইক)। এছাড়াও এ পৌরসভায় নাগরিক উন্নয়ন কমিটির প্রার্থী হিসেবে রয়েছে দেওয়ান মোঃ আব্দুল গণি (চশমা) ও জাতীয় পার্টির প্রার্থী রুহুল আমিন। পৌরবাসীর আশা ছিল সাবেক মন্ত্রী বর্তমান সাংসদ মহীউদ্দীন খান আলমগীল বিষয়টি সুরাহা করে একজন প্রার্থী নির্ধারণ করবেন। কিন্তু গত ৭ জানুয়ারি এলাকায় এসে সবার সাথে বসলেও কোন সমাধান করতে পারেননি বলে জানা যায়। রাজনৈতিক প্রভাবের কারনে এই পৌরসভায় বিএনপি’র একক প্রার্থী হুমায়ুন কবির প্রধানের জয়লাভ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। তারপরও জনগণের কাছেই থেকে গেল নির্বাচনের রায়। এছাড়া কচুয়া পৌরসভায় ৪১ জন কাউন্সিলর প্রার্থীও প্রতিন্ধন্দ্বীতায় নেমেছেন। তারও সুষ্ঠু ভোট হলে স্ব স্ব অবস্থান থেকে বিজয়ী হওয়ার আশাবাদী।

Check Also

যে কোনো আন্দোলন-সংগ্রামের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে : বিএনপি

চাঁদপুর প্রতিনিধি :– চাঁদপুর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সাধারণ সভায় বক্তারা বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম ...

Leave a Reply