মাদকে ছেয়ে গেছে কুমিল্লার অলিগলি : সরবরাহ কাজে ব্যবহার হচ্ছে নারীরা

সাইফুল ইসলাম সোহাগ :

কুমিল্লার লাইসেন্সপ্রাপ্ত মদারুদের অনেকেই এখন আর মদ পান না করলেও মদ বিক্রি হচ্ছে দেদারছে। মাদকে ছেয়ে গেছে কুমিল্লার অলিগলি। প্রকাশ্যেই বসছে মাদকের হাট। এক কথায় মাদকে ছেয়ে গেছে কুমিল্লা। হাত বাড়ালেই পাওয়া যায় নিষিদ্ধসব মাদক দ্রব্য। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত শহরের অভিজাত এলাকার পাশাপাশি গ্রামের ঢেরা ঘরেও চলে মাদকের জমজমাট কেনা বেচা ও সেবন। মাদকের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে এ শহরে গত দুই বছরে কমপক্ষে দুই ডজন খুন হয়েছে। মাদক নিয়ন্ত্রণে স্থানীয় প্রশাসন কার্যত তেমন ভূমিকা না রাখলেও মাদক ব্যবসায়ীদের নিকট থেকে নিয়মিত মাসোহারা নেয়ার গুরুতর অভিযোগ রয়েছে খোদ আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যদের বিরুদ্ধে। এমন অভিযোগ বহুদিন ধরে। মাদকদ্রব্য বিক্রি ও সেবণের হার ক্রমশঃ বেড়ে যাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরাও।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রিকশাওয়ালা থেকে আরম্ভ করে স্কুল কলেজ পড়-য়া ছাত্র ও যুবকরা মাদক সেবন করে। হাত বাড়ালেই গাঁজা, ইয়াবা টেবলেট, ফেন্সিডিল, হেরোইন, বিয়ার, ওয়েন ও হুয়িস্কির মত মাদক পাওয়া যাচ্ছে।

অভিযোগ রয়েছে পুলিশের কতিপয় অসাধু কর্মকর্তা ও গুটিকয়েক মুখোশধারী সমাজ সেবীদের সহায়তায় সড়ক পথ দিয়ে সম্প্রতি মাদকের বড় বড় চালান কুমিল্লা শহরে প্রবেশ করেছে। আর প্রতিনিয়ত ঢাকা চট্রগ্রাম মহাসড়ক দিয়ে শহরের প্রধান প্রধান ব্যবসায়ীদের কাছে পৌছার পর তা জেলাব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে। খুচরা বিকি কিনি ও জেলার এক উপজেলা থেকে অন্য উপজেলায় এই মাদক বিক্রি ও সরবরাহ কাজে ব্যবসায়ীরা ব্যবহার করছে শিশু কিশোর ও নারীদের। অভাবী ঘরের এ মানুষ গুলো মাঝে মধ্যে ধরা পড়লেও প্রকৃত মাদক ব্যবসায়ীরা থেকে যাচ্ছে ধরা ছোঁয়ার বাইরে। তবে শহরের ধর্মপুর, অশোকতলা, শাসনগাছা, শহরের বাইরে চান্দিনা, দাউদকান্দি ও বুড়িচং এলাকায় মাদকের বড় বড় ব্যবসায়ী রয়েছেন। ব্যবসায়ীদের মধ্য খোদ আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্য ও প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতা রয়েছে বলে জানা গেছে। আর সে কারণেই কুমিল্লা থেকে দুর করা যাচ্ছেনা মাদক। এমন অভিমত প্রকাশ করেছেন অনেকেই।

এদিকে চান্দিনা উপজেলা চেয়ারম্যান ও সরকার দলীয় প্রভাবশালী নেতা নাজমুল আহসান মজুমদার রিপন জানান, তার নির্বাচনী ওয়াদায় চান্দিনা শহর মাদক মুক্ত করার ঘোষণা ছিল। তিনি শহরকে মাদক মুক্ত করতে না পারার কথা অকপটে স্বীকার করেছেন। তার একার পক্ষে এ কাজে সফলতা পাওয়া সম্ভব নয় বলেও জানিয়েছেন। পুলিশের এক উর্দ্ধতন কর্মকর্তা জানান, গত সপ্তাহেও কয়েকটি অভিযানে পুলিশ দুই মন গাঁজা ফেনসিডিলসহ বেশ কিছু মাদক দ্রব্য গ্রেফতার ও কয়েকজনকে করা হয়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply