তিতাসে শহীদ ক্যাপ্টেন নূরুল আবসারের নামে সড়ক উদ্বোধন

নাজমুল করিম ফারুক, তিতাস :

তিতাসে শহীদ ক্যাপ্টেন এ.কে.এম নূরুল আবসার মজনু’র নামে কড়িকান্দি বাজার হইতে মোহনপুর লঞ্চঘাট সড়ক উদ্বোধন করেছেন তাঁর বড় ভাই ডা. ফরিদ উদ্দিন (ইনসেটে এ.কে.এম নূরুল আবসার মজনু)।
তিতাস উপজেলার মজিদপুর গ্রামের হযরত মাওলানা শাহসূফী আবদুল জলিল মৌলভী ছাদির মিয়া (রঃ) এর সর্ব কনিষ্ঠ পুত্র বীরমুক্তিযোদ্ধা শহীদ ক্যাপ্টেন এ.কে.এম নূরুল আবসার মজনু’র নামে কড়িকান্দি বাজার হইতে মোহনপুর লঞ্চঘাট সড়ক নামকরণ ও উদ্বোধন করা হয়।
উক্ত সড়ক উদ্বোধনকালে উপস্থিত ছিলেন, তিতাস উপজেলা নির্বাহী অফিসার আমিনুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামীলীগের আহ্বায়ক তফাজ্জল হোসেন ভূঁইয়া, ভাইস চেয়ারম্যান মুন্সি মজিবুর রহমানসহ শহীদ ক্যাপ্টেন এ.কে.এম নূরুল আবসার মজনু’র বড় ভাই ডা. ফরিদ উদ্দিন, বড় ভাই আঃ হালিমের সহধর্মিনী, জাতিজা আলী হানিফ জাফর, গোলাম সারোয়ার, গোলাম মনোয়ার, দেলোয়ার শামীম খোকা, তাতিজি সাকিনা হোসেন, ভাগনী শিরিনা জাহান, মাহমুদ আলী ও রিয়াদ মুন্সী।
উল্লেখ্য, শহীদ ক্যাপ্টেন এ.কে.এম নূরুল আবসার মজনু ১৯৪২ সালের ২৮ নভেম্বর তিতাস উপজেলার মজিদপুর গ্রামের মুন্সী বাড়ীতে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা একজন আধ্যাত্মিক সাধক ও শিক্ষাবিদ। অসাধারণ মেধা সম্পন্ন নুরুল আবসার নারায়নগঞ্জ হাইস্কুল থেকে প্রথম বিভাগে এসএসসি এবং ফৌজদারহাট ক্যাডেট কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করেন। বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিনি কৃতিত্বের সাথে বিএসসিবিই ইঞ্জিনিয়ারিং (ম্যাকানিকেল) ডিগ্রী লাভ করেন। অতঃপর ১৯৬৮ সালে তিনি পাকিস্তান সেনাবাহিনীতে যোগদান করেন এবং ১৯৭০ সালে ক্যাপ্টেন পদে পদোন্নতি লাভ করেন।
রংপুর-১০৩ নং ট্যাংক রেজিমেন্টের দায়িত্বে নিয়োজিত এ বীর সৈনিক ১৯৭১’র ১৪ মে রণাঙ্গণেই শাহাদাৎ বরণ করেন। বহু চেষ্টার পরও তাঁর মরদেহের কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি।
মুক্তিযুদ্ধে শহীদ ক্যাপ্টেন নুরুল আবসারের অবদান ও আত্মত্যাগের স্বীকৃতি স্বরূপ বাংলাদেশ সরকার তাঁর ছবি সম্বলিত শহীদ বুদ্ধিজীবি স্মারক ডাকটিকেট (৯ম পর্যায়) প্রকাশ করেছে। রংপুরবাসীরা তাঁর মহান ত্যাগের স্মরণে স্থানীয় একটি স্টেডিয়ামের নামকরণ করেন শহীদ ক্যাপ্টেন নুরুল আবসার স্টেডিয়াম।

Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply