‘ফুলবাড়িয়া কয়লা খনি নিয়ে বাংলাদেশকে আমেরিকার চাপ’ -উইকিলিকস

ইন্টারন্যাশনাল, ২২ ডিসেম্বর (কুমিল্লাওয়েব ডট কম) :

সহিংস আন্দোলনের জের ধরে বন্ধ হয়ে যাওয়া দিনাজপুরের ফুলবাড়িয়া কয়লা খনির কাজ পুনরায় শুরু করতে বাংলাদেশ সরকারের ওপর মার্কিন কূটনীতিকরা চাপ প্রয়োগ করেছিল। উইকিলিকসের গোপন তারবার্তায় এ তথ্য প্রকাশিত হয়েছে। সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান।

ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত জেমস এফ মরিয়ার্টি গত বছর বাংলাদেশের জ্বালানি উপদেষ্টার সঙ্গে আলোচনায় বসেন। এ সময় ফুলবাড়িয়ায় উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা উত্তোলনে ব্রিটিশ কোম্পানি গ্লোবাল কোল ম্যানেজমেন্টের (জিসিএম) পরিকল্পনা অনুমোদন দিতে মরিয়ার্টি বাংলাদেশকে আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা উত্তোলনের প্রতিবাদে ২০০৬ সালে ফুলবাড়িয়াতে গণআন্দোলন এক পর্যায়ে সহিংসতায় রূপ নেয় এবং জিসিএম তার কার্যক্রম বন্ধ করতে বাধ্য হয়।

ওই সময় পুলিশ আন্দোলনকারীদের লক্ষ্য করে গুলি চালালে তিন জন নিহত ও কয়েকশ’ লোক আহত হয়। কিন্তু এ ঘটনার পরও জিসিএম বাংলাদেশে তাদের কার্যক্রম শুরু করতে এখনো লবিং চালিয়ে যাচ্ছে।

গত মাসে জিসিএম এর চেয়ারম্যান স্টিভ বাইওয়াটার বলেন, বাংলাদেশের সংসদীয় স্থায়ী কমিটি উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা উত্তোলনের পক্ষে সুপারিশ করেছে। তবে বাংলাদেশ সরকার কয়লা খনি প্রকল্পের কাজ শুরু করা হবে কি না সে ব্যাপারে এখন পর্যন্ত দৃঢ় নিশ্চয়তা দেয়নি। বিষয়টি এখনো বিতর্কমূলক ইস্যু হিসেবে রয়েছে।

উইকিলিকসের গোপন তারবার্তায় আরো বলা হয়, মরিয়ার্টি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জ্বালানি উপদেষ্টা তৌফিক-ই এলাহী চৌধুরীকে আহ্বান জানিয়েছিলেন এই বলে-‘উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা উত্তোলনই এগিয়ে যাওয়ার সর্বোত্তম পন্থা’।

প্রসঙ্গত, বর্তমানে ফুলবাড়িয়া প্রকল্প পরিচালনাকারী কোম্পানি এশিয়া এনার্জিতে আমেরিকার ৬০ শতাংশ বিনিয়োগ রয়েছে। উইকিলিকসের গোপন তারবার্তায় প্রকাশিত হয়েছে যে, এশিয়া এনার্জির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে বলেন, ‘আমরা আশাবাদী, আগামী মাসেই কোম্পানি প্রকল্পের ব্যাপারে সরকারের পক্ষ থেকে অনুমোদন লাভে সমর্থ হবে’।

তারবার্তায় আরো প্রকাশিত হয়েছে, তৌফিক-ই এলাহী মন্তব্য করেন, ‘ফুলবাড়িয়া এলাকায় বসবাসরত উপজাতীয় সম্প্রদায় ঐতিহাসিকভাবে নির্যাতিত ও অসচ্ছল হওয়ায় কয়লা খনি প্রকল্পের ইস্যুটি রাজনৈতিকভাবে খুবই স্পর্শকাতর’।

তিনি সংসদীয় স্থায়ী কমিটির মাধ্যমে প্রকল্প বাস্তবায়নে সহযোগিতার আশ্বাস দেন। তবে এ ব্যাপারে জিসিএম কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

সূত্র – দ্য গার্ডিয়ান , আরটিএনএন, বিডিনিউজ

Check Also

রিয়াদে জ্যাবের ‘অমর একুশে’ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

ষ্টাফ রির্পোটার :– “অমর একুশের চেতনায় গন মানুষের মনে জেগে উঠুক উজ্জলতা উৎকৃষ্টতা” শীর্ষক আলোচনা ...

Leave a Reply