নাটোরের সিংড়ায় নির্বাচনী আচরন বিধি লঙ্ঘন করছে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থী :বিএনপি প্রার্থীকে প্রাণনাশের হুমকি

আকতার হোসেন (অপূর্ব) নাটোর থেকে :
আসন্ন সিংড়া পৌরসভা নির্বাচন কে সামনে রেখে নির্বাচনী আচরন বিধি লঙ্ঘন করেই প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে ক্ষমতাসীন দলের এমপি জুনাইদ আহমেদ পলকসহ মহাজোটের বিতর্কিত প্রার্থী ও নব্য আওয়ামীলীগার আসাদুজ্জামান বাচ্চু। তাছাড়া বিভিন্ন স্থানে জনসমাবেশে প্রকাশ্যে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীকে দাফন করার হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এদিকে নির্বাচনী আচরন বিধিতে মাইক ব্যবহার করে জনসমাবেশ নিষিদ্ধ থাকলেও, সে বিধি নিষেধ মানছে না ক্ষমতাসীন দলের এমপি ও মেয়র প্রার্থী। প্রকাশ্যে তারা বিভিন্ন ওয়ার্ডে জনসমাবেশে মাইক ব্যবহার করে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর বিরুদ্ধে বিষেদগার আচরন এবং প্রকাশ্যে হুমকিসহ অশ্লীল কথা-বার্তা বলছে। আর এতে করে ক্ষমতাসীন দলের এমপি এবং তার আশির্বাদ পুষ্ট এক আ’লীগ কর্মী প্রকাশ্যে হুমকি দেওয়ায় ভিতস্থিত হয়ে পড়েছে অন্য প্রার্থীসহ সাধারণ ভোটাররা। ভোটাররা মনে করছেন, নির্বাচনের আগেই প্রকাশ্যে এমন হুমকি দেওয়া হচ্ছে, তাহলে ভোটের দিন তারা কি করবে এমন প্রশ্ন তাদের? তবে এমন হুমকির পর সুষ্ঠ ভাবে যাতে ভোট গ্রহন শেষ হয়; সে কারনে সেনাবাহিনী মোতায়নের জোর দাবী জানিয়েছেন সাধারন ভোটাররাসহ মেয়র ও কাউন্সিলর প্রাথীরা।

নির্বাচনী আচরন বিধিতে বলা হয়েছে, কোনো প্রার্থীর বিরুদ্ধে অশ্লীল-বিষেদগার আচরন এমনকি প্রতীক বরাদ্দ না হওয়ায় পর্যন্ত কোনো ধরনের জনসমাবেশ করা যাবে না। তাছাড়া মাইক ব্যবহারের বিষয়ে বিধি নিষেধ করা হয়েছে। কিন্তু মহাজোটের বিতর্কিত প্রার্থী ও নব্য আওয়ামীলীগার এবং স্বাধীনতা বিরোধীর ছেলে আসাদুজ্জামান বাচ্চুকে সঙ্গে নিয়ে মাঠে নেমে পড়েছে স্থানীয় এমপি জুনাইদ আহমেদ পলক। আর এমপি পলক বাচ্চুকে নিয়ে বিভিন্ন ওয়ার্ডে জনসমাবেশে মাইক ব্যবহার করে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর বিরুদ্ধে অশ্লীল-অকথ্য ভাষায় এমনকি প্রকাশ্যে হুমকি দিতে দেখা গেছে। যা নির্বাচনী আচরন বিধিতে সম্পূর্ন নিষেধ। কিন্তু‘ এমপি পলক ক্ষতাসীন দলের হওয়ায় তিনি এ বিধি নিষেধ মানছেন না। আর প্রশাসন এবিষয়ে নিশ্চিুপ।

সূত্র জানায়, শুক্রবার রাতে পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের সøুইচ গেট বাজারে নির্বাচনী প্রচারনার অংশ হিসেবে এক সমাবেশের আয়োজন করা হয়। সমাবেশে এমপি জুনাইদ আহমেদ পলক, উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিজান,উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড.জিল্লুর রহমান, মহাজোটের মেয়র প্রার্থী আসাদুজ্জামান বাচ্চুসহ আ’লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সমাবেশে আ’লীগ কর্মী ও এমপি পলকের আশির্বাদপুষ্ট আব্দুর রাজ্জাক বর্তমান মেয়র শামিম আল রাজির বিরুদ্ধে অশ্লীল ও অকথ্য ভাষায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, শামিম আল রাজির কোনো প্রচার-প্রচারনা ও পোষ্টার আমরা দেখতে চাই না। আপনারা শামিম আল রাজির কোনো পোষ্টার লাগাতে দিবেন না। আব্দুর রাজ্জাক শামিম আল রাজিকে স্বৈরাচারী অখ্যায়িত করে তার নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, পুরাতন বন্ধুকে ভুলে গিয়ে আলোর দিকে আসুন। এই নির্বাচন হবে স্বৈরাচারীর বিরুদ্ধে।

আব্দুর রাজ্জাক আরও বলেন, বর্তমান মেয়র শামিম আল রাজি ৫নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা, আমিও একই ওয়ার্ডের বাসিন্দা। আর এই ওয়ার্ডে শামিম আল রাজির প্রচার-প্রচারনা বন্ধ করে দিয়ে ৫নং ওয়ার্ডে তার কবর রচনা করবো। আপনাদের দাওয়াত রইল। আগামী ১২জানুয়ারী ভোট গণনার পর আপনারা তার দাফন-কাফনের জন্য আসবেন।

এদিকে সমাবেশে এমপি পলক প্রকাশ্যে শামিম আল রাজির উদ্দেশে বলেন, আপনি গণতন্ত্র হত্যাকারী এবং স্বৈরাচারী। এই দমদমার মাটিতে আমরা আপনাকে ঢুকতে দিতে পারি না। আমরা পরিষ্কার ভাষায় বলে দিতে চায়, আগামী ১২জানুয়ারী আপনার প্রত্যকটি কর্মের ফল ব্যালটের মাধ্যমে জবাব দিতে চায়। এমপি পলক আ’লীগের অপর দুই বিদ্রোহী প্রার্থী গোলাম কবির ও টিপুর উদ্দেশ্যে বলেন, যারা আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন, আমি আশা করছি, আগামী ২৬ ডিসেম্বরের আগে মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে নিবেন। আর যদি না তুলে নেন, তাহলে পৌরবাসী আপনাদের সাথে যেমন আচরন করা দরকার, তেমন আচরন করবে।

তবে একজন ক্ষমতাসীন দলের এমপি এবং তার আশির্বাদপুষ্ট ব্যক্তির এমন কথা বার্তা বলায় ভিতস্থিত হয়ে পড়েছে পৌরবাসী। আগামী ১২জানুয়ারী ভোট গ্রহন নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। একজন আ’লীগের সাধারন কর্মী হয়ে এতজোর দিতে বলায় সন্দেহ দেখা দিয়েছে অন্য প্রার্থী ও সাধারন ভোটারদের মাঝে। আগামীতে সুষ্ঠ নির্বাচন নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন আ’লীগ-বিএনপির অন্যসব প্রার্থীরা।

এবিষয়ে উপজেলা রিটার্নিং অফিসার আতাউল গনি বলেন, কোনো প্রার্থীর বিরুদ্ধে অশ্লালীন অকথ্য ভাষায় কথা বলা যাবে না। আর তারা যদি ওইসব কথা-বার্তা বলে থাকে তাহলে ঠিক করেনি। আর ব্যক্তিগত ভাবে কাউকে আক্রশ করা যাবে না। যা সম্পর্ন্ন নির্বাচনী আচরন বিধি লঙ্ঘন। আমি এবিষয়ে অবহিত হয়ে তাদেরকে সর্তক করে দিব। আর তারা যদি না মানে তাহলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Check Also

লাকসাম-মনোহরগঞ্জের বিএনপি’র সাবেক এমপি আলমগীরের জাতীয় পার্টিতে যোগদান

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা-১০ (লাকসাম-মনোহরগঞ্জ) বিএনপি’র সাবেক এমপি এটিএম আলমগীর জাতীয় পার্টিতে যোগদান করেছেন। সোমবার জাতীয় ...

Leave a Reply