চৌদ্দগ্রামে শ্বশুড় বাড়িতে জামাইর রহস্যজনক মৃত্যু

এস এম জাহিদ :
চৌদ্দগ্রামে শ্বশুড় বাড়িতে জাহাঙ্গীর আলম নামে এক জামাইর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। বুধবার রাতে উপজেলার চিওড়া গ্রামে মানিক মেম্বারের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। একটি প্রভাবশালী মহল বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এনিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। আজ সন্ধ্যায় সাংবাদিকদের নিকট নিহত জাহাঙ্গীরের বাবা উপজেলার আলকরা ইউনিয়নের শিলরী গ্রামের জয়নাল আবেদীন অভিযোগ করে বলেন, প্রায় ৭/৮ বছর আগে তার ছেলে জাহাঙ্গীর আলমের সাথে চিওড়া ইউপির সাবেক মেম্বার মৃত মানিক মেম্বারের মেয়ে নাজমা আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের ১ ছেলে ও মেয়ের জন্ম হয়। বিগত দুই বছর আগে জাহাঙ্গীরকে বিদেশ পাঠাবে বলে ৩ লাখ টাকা নিয়ে তাকে না পাঠিয়ে তার এক শ্যালককে বিদেশ পাঠিয়ে দেয়। বিদেশ যেতে না পেরে সে মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে। তার দেয়া টাকা ফেরত চাইলে শ্বশুড় পক্ষের লোকজন বিভিন্ন সময় নির্যাতন সহ হুমকি দিতো। সে মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে নাঙ্গলকোট মানষিক হাসপাতালে চিকিৎসাও দেয়া হয়। স্ত্রী নাজমা দীর্ঘ সময় বাবার বাড়িতে বসবাস করার সুবাধে গত ১৫ ডিসেম্বর রাতে জাহাঙ্গীর শ্বশুড় বাড়িতে গেলে তার দেয়া ৩ লাখ টাকার বিষয় নিয়ে স্ত্রী নাজমা, শ্যালকসহ শ্বশুড় পক্ষের লোকজনের সাথে ঝগড়া বাধে। এক পর্যায়ে জাহাঙ্গীরকে বেদম মারধর করে মুখে বিষ ঢেলে আত্মহত্যা করেছে বলে প্রচার করতে থাকে। ওই রাতে জাহাঙ্গীর বিষপানে আত্মহত্যা করেছে বলে তার বাড়িতে শ্বশুড় পক্ষের লোকজন সংবাদ পাঠায়। পরদিন সকালে ১৬ ডিসেম্বর সকালে তার বাবা জয়নাল আবেদীন সহ তার স্বজনরা চিওড়া গ্রামে গেলে তাদের মামলা ও থানা পুলিশ না জানানোর স্বর্তে কৌশলে লাশ পাঠিয়ে দেয়। এলাকার প্রভাবশালী মহলের চাপে ওই দিন রাতে নিহত জাহাঙ্গীরের লাশ দাফন করা হয়। ছেলে হারার শোকে জয়নাল আবেদীন ও তার পবিার মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ে। এনিয়ে শ্বশুড় পক্ষের একাধিক সুত্র দাবি করে, জাহাঙ্গীর মানসিক রোগী ছিলো। তাকে দীর্ঘদিন নাঙ্গলকোট মানসিক হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। সে নিজেই সকলের অজান্তে রাতে বিষপান করে। হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল হাসান বলেন, জাহাঙ্গীরের মৃত্যু রহস্যজনক। থানাকে না জানিয়ে গোপনে লাশ দাফন করা হয়। তার পরিবারকে আদালতে মামলা করার জন্য পরামর্শ দিয়েছি। আদালতের নির্দেশ পেলেই আইনগত ব্যবস্থা নিবো।

Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply