কুমিল্লায় ১টাকার সোনালী কয়েন বিক্রির হিড়িক : ২৩৮ কয়েনসহ আটক ৫

কুমিল্লা ২৩ নভেম্বর, (কুমিল্লাওয়েব ডট কম) :

কুমিল্লায় ১টাকার সোনালী কয়েন বিক্রির হিড়িক পড়ে গেছে । শহরের বিভিন্ন স্থানে সংঘবদ্ধ একটি চক্র লোভনীয় টোপ দিয়ে ১ টাকার সোনালী কয়েন/মুদ্রা কিনে নিচ্ছে। চক্রটি ১ টাকার সোনালী কয়েন ১০ টাকা থেকে ১০০ টাকা দাম দিয়ে ক্রয় করছে। বাদামী কালারের ১ টাকার কয়েনগুলো কিনতে উক্ত চক্রটি বেশ তৎপর। অপরদিকে কুমিল্লার সাধারণ মানুষরাও তাদের কাছে জমা থাকা ১টাকার কয়েন লোভনীয় অফারে বিক্রি করতে ওই চক্রটির কাছে হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন। তারা বাড়িতে বাড়িতে মহিলাদের নিকট মাটির ব্যাংক ভেঙ্গে এবং অন্যান্য কায়দায় জমাকৃত কয়েনগুলো বের করে এই অফারের মাধ্যমে বিক্রির চেষ্টা করছে। তবে কারা, কি উদ্দেশ্যে এসব কয়েন কিনে নিয়ে যাচ্ছে বিষয়টি তাদের কাছেও অজানা ?
বিষ্ণপুর এলাকার রকিব জানায়, সে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় বাসা থেকে কর্মস্থলে যাওয়ার পথে কুমিল্লা শহরতলীর কালিয়াজুরী এলাকায় লোকজনের ভীড় দেখে কৌতুহলভাবে এগিয়ে যায়। সেখানে একটি চক্র এসব ১টাকার কয়েন বিভিন্ন দামে ঐ এলাকার সাধারণ জনগনের নিকট থেকে ক্রয় করছে। এমতাবস্থায় তার সাথে থাকা ৩টি সোনালী কয়েনের দাম চক্রটির নিকট হাকায়। তারা প্রত্যেকটি কয়েনের জন্য তাকে ৬০ টাকা প্রদান করবে বলে জানায়। সে ১ টাকা কয়েনের এই চাহিদা দেখে তাদেরকে ১০০ টাকায় বিক্রি করবে বলে জানালে তারা রাজি হয়ে তার কাছ থেকে ৩টি কয়েন ৩০০ টাকায় ক্রয় করে নিয়ে যায়।
এ বিষয়ে কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মহিউদ্দিন মাহমুদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বিষয়টি সকাল থেকে বিভিন্ন মাধ্যমে অবগত হয়েছি এবং ঐ চক্রটিকে ধরতে আমরা শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে পুলিশ ও সাদা পোশাকধারী গোয়েন্দা নিয়োজিত রেখেছি।

আটক ৫ : উদ্ধার ২৩৮ কয়েন
মঙ্গলবার দুপুর থেকে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোতায়ালী মডেল থানা পুলিশ ও জেলা গোয়েন্দা সংস্থা (ডিবি) কুমিল্লা শহর ও শহরতলী থেকে ২৩৮টি কয়েনসহ ৫ জনকে আটক করেছে।
জানা যায় সংঘবদ্ধ ওই চক্রকে ধরতে মঙ্গলবার সকাল থেকেই সাদা পোশাকে পুলিশ ও বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা জেলা সদরসহ বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন পয়েন্টে অভিযানে নামে। অভিযানে আটক করা হয়েছে ৫ জনকে। এর মধ্যে কোতয়ালী পুলিশ শহর থেকে ৮৮ টি কয়েনসহ আরমান ও আরব আলী নামের ২ জনকে এবং ডিবি পুলিশ শহরতলীর চানপুর এলাকা থেকে ১৫০টি কয়েনসহ সফিকুল ইসলাম, আঃ মালেক ও মিজানুর রহমান নামের ৩ ব্যক্তিকে আটক করেছে। রাতে কোতয়ালী মডেল থানার ওসি মহিউদ্দিন মাহমুদ জানান কয়েন সংগ্রহকারী ওই চক্রের অন্যান্য সদস্যদের আটক করতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এদিকে বেশী দামে কয়েন সংগ্রহ করার কারন ও এর ব্যবহারসহ এ চক্রের খোঁজে পুলিশ রাতে আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে বলে জানাগেছে।

Check Also

লাকসাম-মনোহরগঞ্জের বিএনপি’র সাবেক এমপি আলমগীরের জাতীয় পার্টিতে যোগদান

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা-১০ (লাকসাম-মনোহরগঞ্জ) বিএনপি’র সাবেক এমপি এটিএম আলমগীর জাতীয় পার্টিতে যোগদান করেছেন। সোমবার জাতীয় ...

Leave a Reply