মুরাদনগরে চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে মামলা করে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন এক ব্যবসায়ী

স্টাফ রিপোর্টার, মুরাদনগর :
কুমিল্লার মুরাদনগরে ২ লাখ টাকা চাঁদা দাবির ঘটনার মামলা করায় ক্ষীপ্ত হয়ে আসামীরা প্রকাশ্যে প্রাননাশের হুমকির ভয়ে এক ব্যবসায়ী গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে তিনি শনিবার বিকেলে মুরাদনগর থানায় একটি জিডি (যার নং-২২৯) করেছেন।
জানা যায়, মুরাদনগর উপজেলার দারোরা ইউনিয়নের কাজিয়াতল গ্রামের নায়েব আলী সরকারের ছেলে বিল্লাল হোসেন সরকার ‘পল্লী কল্যান সংস্থা’ নামক একটি ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করে আসছেন। উক্ত প্রতিষ্ঠান থেকে আশ-পাশের এলাকায় সমাজের অসহায় ও গরীব লোকদের ক্ষুদ্্র ঋন দিয়ে স্বাবলম্বী করে যাচ্ছেন। এর মধ্যে পালাসুতা গ্রামের আব্দুর রশীদের ছেলে মনির হোসেন, মুর্শেদ মিয়া ও আনোয়ার হোসেন ২ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে আসছে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় প্রায়ই ব্যবসায়ী বিল্লাল হোসেন সরকারকে হুমকি-ধমকি দিয়ে আসছিল। ব্যবসায়ী বিল্লাল হোসেন সরকার গত ৭ অক্টোবর বিভিন্ন স্থান থেকে ক্ষুদ্্র ঋনের কিস্তির টাকা উঠিয়ে দারোরা বাজার থেকে অফিসে ফেরার জন্য মোটর সাইকেলে উঠেন। দুপুর অনুমান ১২টায় সে পালাসুতা চৌমুহনীতে পৌঁছামাত্র পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে উল্লেখিত লোকজন হাতে লাঠি ও হকিষ্টিক নিয়ে মোটর সাইকেল থামিয়ে দাবিকৃত ২ লাখ টাকা চাঁদা দেয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করেন। নতুবা এ এলাকায় ব্যবসাতো দুরের কথা ‘পল্লী কল্যান সংস্থা’র অফিস ভাংচুর করে আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দিবে বলে হুমকি দেয়। এ সময়ও তাদের দাবিকৃত ২ লাখ টাকা চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় আসামীরা ব্যবসায়ী বিল্লাল হোসেন সরকারের উপর আক্রমন চালায়। তখন সুর-চিৎকারে এলাকার লোকজন এগিয়ে আসলে কৌশলে মোটর সাইকেল ঘুরিয়ে তিনি প্রানে রক্ষা পান। এ ব্যাপারে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে গত ৯ অক্টোবর মুরাদনগর থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ ঘটনার সত্যতা পাবার পরও মামলার পরিবর্তে অভিযোগটি জিডি হিসাবে (যার নং-২১৫১) গ্রহন করেন। পরবর্তীতে মুরাদনগর থানা পুলিশ ঘটনার সত্যতা পাবার পরও আসামীদের বিরুদ্ধে কোন প্রকার আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন না করায় বাধ্য হয়ে ব্যবসায়ী বিল্লাল হোসেন সরকার বাদী হয়ে গত ৩ নভেম্বর বুধবার কুমিল্লার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিট্টেট আদালতে ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা (যার নং পি-আর-৩৩৪/১০) করলে বিচারক মো. আব্দুল হান্নান তদন্তপুর্বক প্রতিবেদন দেয়ার জন্য ওসি মুরাদনগরকে নির্দেশ দেন। মামলার খবর শুনে ক্ষীপ্ত হয়ে আসামীদের প্রকাশ্যে প্রান নাশের হুমকির ভয়ে ব্যবসায়ী বিল্লাল হোসেন সরকার এখন গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন। এ ব্যাপারে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে তিনি শনিবার বিকেলে মুরাদনগর থানায় একটি জিডি (যার নং-২২৯) করেছেন।
এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও মুরাদনগর থানার এস আই আলমগীর হোসেন জানান, ঘটনার তদন্ত চলছে, সত্য প্রমানীত হলে মামলা নেয়া হবে। অপর দিকে এ ঘটনায় অভিযুক্ত মুর্শেদ মিয়া জানান, চাঁদা দাবির বিষয়টি সঠিক নয়, তবে ওই ব্যবসায়ীর প্রতিষ্ঠান থেকে ২ লাখ টাকা ঋন চাওয়া হয়েছিল।

Check Also

দেবিদ্বারের সাবেক চেয়ারম্যান করোনা আক্রান্ত হয়ে ঢাকায় মৃত্যু: কঠোর নিরাপত্তায় গ্রামের বাড়িতে লাশ দাফন

দেবিদ্বার প্রতিনিধিঃ কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার ভাণী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান (৫৫) করোনায় আক্রান্ত ...

Leave a Reply