ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলাবাসী আন্দোলনে যাচ্ছে ॥ এমপি’র ডিও লেটার মিথ্যা

লিটন চৌধুরী, ব্রাহ্মনবাড়িয়া(৪ নভেম্বর) :

নবগঠিত বিজয়নগর উপজেলার সদর দপ্তর চম্পকনগরে স্থানান্তর চেষ্টার প্রতিবাদে আজ বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় বিজয়নগর বেগম মরিয়ম স্মৃতি কিন্ডার গার্টেন স্কুল প্রাঙ্গনে এক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন ইছাপুরা ইউপি চেয়ারম্যান হাজী আক্তার হোসেন। বক্তব্য রাখেন বুধন্তি ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুল ইসলাম, পাহাড়পুর ইউপি চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান, চান্দুরা ইউপি চেয়ারম্যান ডলি রানী দাস, আওয়ামীলীগ নেতা কাজী হারিসুর রহমান, ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা সাংবাদিক দীপক চৌধুরী বাপ্পী, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান শহীদ মিয়া, সাবেক এটিও কুতুবুল আলম, জাপা নেতা আজিজুল ইসলাম দুলাল, বিএনপি নেতা মহসিন চৌধুরী, ডলার চৌধুরী, আওয়ামীলীগ নেতা গোলাম রব্বান, অশোক রায় চৌধুরী, আপন মিয়া, নুরুল আমিন, গিয়াস উদ্দিন, আলমগীর কবির, আব্দুল কাদির মেম্বার, আব্দুল কুদ্দুছ সরদার, শাহ আলম, রাজু মিয়া প্রমূখ।
সভায় বক্তারা অভিযাগ করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর আসনের সাংসদ সদস্য অ্যাডঃ লুৎফুল হাই সাচ্চু, বিজয়নগর উপজেলার সদর দপ্তর বর্তমানে স্থাপিত মির্জাপুর থেকে সরানোর জন্য মন্ত্রী পরিষদ সচিবকে গত ১৯ অক্টোবর একটি মিথ্যা ডিও লেটার দিয়েছেন। এর আগেও ২০০৯ সালের ১৮ মে, স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর কাছে একটি মিথ্যা ডিও লেটার দিয়ে কথিত মিলনবাজার নামক স্থানে বিজয়নগর উপজেলার সদর দপ্তর স্থাপনের কথা উল্লেখ করেন। এসব মিথ্যা ডিও লেটার নিয়ে উপজেলা কার্যক্রমকে ব্যাহত করায় বক্তারা লুৎফুল হাই সাচ্চুর বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। মির্জাপুর থেকে সদর দপ্তর স্থানান্তর চেষ্টার প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে আন্দোলন কর্মসূচী ঘোষণা করা হয়। কর্মসূচীর মধ্যে রয়েছে ৬ নভেম্বর সকাল ১০টায় চান্দুরা খেলাট মাঠে প্রতিবাদ সমাবেশ, ৯ নভেম্বর ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ, ১০ নভেম্বর ঢাকা-সিলেট ও চট্টগ্রাম-সিলেট রেলপথ অবরোধ এবং ১৪ নভেম্বর বিজয়নগর উপজেলার হাট-বাজারে সর্বাত্মক হরতাল।
সভায় বক্তারা জীবনের বিনিময়ে হলেও বিজয়নগর উপজেলার সদর দপ্তর মির্জাপুর থেকে অন্যত্র স্থানান্তরের সকল ধরনের অপচেষ্টা প্রতিহত করার দৃঢ় অঙ্গিকার ব্যক্ত করেন।

Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply