তিতাসে বিভিন্ন জেলার ৬ সিএনজিসহ একজন আটক

নাজমুল করিম ফারুক, তিতাস থেকে::
গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তিতাস থানা পুলিশ গতকাল রাত ১০টায় কড়িকান্দি বাজার সংলগ্ন একলারামপুর দেলোয়ার হোসেনের গ্যারেজ থেকে ৬টি সিএনজি উদ্ধার করে এবং সিএনজি রাখার দায়ে একলরামপুর গ্রামের আলী আহম্মেদের ছেলে মোঃ আলম (২৫) আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।
তিতাস থানা সূত্রে জানা যায়, শনিবার রাত ১০টায় এ.এস.আই ফরিদ উদ্দিন আহম্মেদ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারেন কুমিল্লা সদর দক্ষিণ এলাকা থেকে কুমিল্লা-থ-১১-৬৭৯৫ সিএনজি গাড়ীটি কড়িকান্দি বাজার সংলগ্ন একলারামপুর দেলোয়ারের গ্যারেজে রাখা হয়েছে। তাৎণিক পুলিশ উক্ত গ্যারেজে অভিযান চালিয়ে উল্লেখিত সিএনজিসহ মালিক ও কাগজপত্র না থাকায় বিভিন্ন জেলার আরো ৫টি সিএনজি মৌলভীবাজার-থ-১১-১৫৩৬, মৌলভীবাজার-থ-১১-০৫৭৩, মৌলভীবাজার-থ-১১-১৯৪৩, মৌলভীবাজার-থ-১১-১৪৩০ ও নারায়ণগঞ্জ-থ-১১-৩৪৬৬ জব্দ করে। গ্যারেজের মালিক দেলোয়ার হোসেন থানা পুলিশকে জানান একলারামপুর গ্রামের আলী আহম্মেদের ছেলে আলম কুমিল্লা-থ-১১-৬৭৯৫ সিএনজি শুক্রবার রাতে তাহার গ্যারেজে রাখে। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে আলমকে গ্রেফতার করে। আলম পুলিশকে জানায়, সে কুমিল্লার সোহাগ নামে এক ব্যক্তির নিকট হতে গাড়ীটি ক্রয় করেছে।
এদিকে পুলিশের ধারনা আটকৃত গাড়ীগুলোর বৈধকোন কাগজপত্র না থাকায় গাড়ীগুলো চুরি, ছিনতাই বা অবৈধভাবে ক্রয় করতে পারে। বিআরটিএ অধিদপ্তরের মাধ্যমে জব্দকৃত সিএনজিগুলোর প্রকৃত মালিকানা যাচাই-বাছাইয়ের জন্য প্রক্রিয়া চলছে বলে থানা পুলিশ জানান।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...