প্রবল বর্ষণে কুমিল্লার জনজীবন বিপর্যস্ত


কুমিল্লা, ০৮ অক্টোবর (কুমিল্লাওয়েব ডট কম) :
কুমিল্লায় দুই দিনের অবিরাম বর্ষণে শহরের অধিকাংশ এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। জলাবদ্ধতার কারণে খানা-খন্দে ভরা রাস্তায় ঘটছে নানা দুর্ঘটনা। ডাস্টবিনের ময়লা আবর্জনা পানির সঙ্গে মিশে ছড়াচ্ছে দুর্গন্ধ। ফলে জনজীবনে চরম দুভোগ নেমে এসেছে ।
দেশের এই প্রাচীন পৌরসভাটির রয়েছে ১৫০ কিলোমিটার পাকা সড়ক। যার অধিকাংশই খানা-খন্দে ভরা। তার ওপর প্রবল বর্ষণে জনজীবনে নেমে এসেছে ‘মরার ওপর খরার ঘা’।
সারেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, শহরের প্রাণ কেন্দ্র স্টেডিয়াম মার্কেটটি প্রায় ২ ফুট পানির নিচে তলিয়ে গেছে। অধিকাংশ দোকানে পানি ঢুকে নষ্ট হচ্ছে মূল্যবান ইলেক্ট্রনিক্স সামগ্রী। ব্যবসায়ীরা তাদের দোকানে ঢুকে পড়া পানি সরাতে দিনভর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বিরামহীন বর্ষণে শহরের মনোহরপুর, কান্দিরপাড়, রাজগঞ্জ, বালুতুপা, নুরপুর, টিক্কাচর, গর্জনখোলা, হাউজিং, কাটাবিল, হযরতপাড়া, কাশারিপট্টি, চকবাজার, কাপড়িয়াপট্টি, দেশওয়ালীপট্টি, ভিক্টোরিয়া কলেজ রোড, ডিগাম্বরীতলা, দক্ষিণ চর্থা, ইপিজেড রোড, ধর্মপুর রোড, বাগিচাঁগাও, চিড়িয়া খানা রোডসহ বিভিন্ন এলাকার রাস্তা পানিতে তলিয়ে যায়।
এদিকে শহরের নিচু এলাকার বসতবাড়িগুলোতে পানি ঢুকে পড়েছে। শহরের কাটাবিল, হযরতপাড়া, টিক্কারচর, চর্থা, গর্জনখোলা এলাকার ঘরের বাসিন্দাদের দিনভর পানি সরাতে ব্যস্ত থাকতে হচ্ছে। তাছাড়া ওইসব এলাকার অপরিকল্পিতভাবে স্থাপিত ড্রেনের ময়লা পানিতে মিশে মারাত্মক দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়ছে।
কোথাও কোথাও পানির নিচে তলিয়ে থাকা খানা-খন্দ সড়কে রিক্সা ও ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। এতে প্রয়োজনের তাগিদে ঘর থেকে বের হওয়া সাধারণ মানুষ পড়ছেন অনাকাংখিত দুর্ঘটনায়।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply