কুমিল্লায় দু’গ্রুপে সংঘর্ষ ॥ সাংবাদিক সহ আহত ১৬ ॥ মহিলাসহ গ্রেফতার ৭


সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, কুমিল্লা থেকেঃ
কুমিল্লা শহরের সুজানগরে এলাকায় পূর্বের ঘটনাকে কেন্দ্র করে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে সাংবাদিকসহ ১৬ জন আহত হয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। পুলিশ মহিলা সহ ৭ জনকে গ্রেফতার করে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ঘটনাস্থলে পুলিশ অতিরিক্ত মোতায়েন করা হয়েছে।
জানা যায়, গতকাল ১৭ সেপ্টেম্বর দুপুরে কুমিল্লা শহরতলীর সুজানগরে আজগর ও উজ্জ্বলের বাড়ীতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাবে’র একটি বিশেষ টহল দল অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে তল্লাশী চালায়। র‌্যাবের অভিযান শেষে ঘটনাস্থল ত্যাগ করার পর ফয়সাল গ্রুপ এর লোকজন আজগর ও উজ্জ্বলের বাড়ীতে বাড়ীতে হামলা চালায়। খবর পেয়ে সাংবাদিকরা তথ্য সংগ্রহ করতে গেলে স্থানীয় আজগর গ্রুপের সন্ত্রাসীরা সাংবাদিকদের ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয় ও তাদের উপর হামলা চালায়। এতে দৈনিক রূপসী বাংলার স্টাফ রিপোর্টার বাহার রায়হান, আইএনবি বার্তা সংস্থার কুমিল্লা প্রতিনিধি দেলোয়ার হোসেন জাকির, দৈনিক সমকাল ও বিটিভির ফটো সাংবাদিক এন.কে রিপন, দৈনিক কুমিল্লার কাগজের স্টাফ রিপোর্টার হুমায়ন কবির জীবন আহত হয়। ওই সন্ত্রাসীরা প্রথমে বাহার ও রিপনকে শারীরিক ভাবে লাঞ্চিত করে তাদের ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয়। পরে পুলিশ ও স্থানীয় কয়েকজনের সহযোগীতায় তাদেরকে ক্যামেরা উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে নিয়ে আসা হয়। এর কিছুক্ষণ পরে প্রতিপক্ষ গ্রুপের হামলায় আহত হাবিবের ছবি তুলতে গেলে হুমায়ূন কবীর জীবন ও দেলোয়ার হোসেন জাকিরের উপর হামলা চালায় ওই সন্ত্রাসীরা। তাদের ক্যামেরা ছিনিয়ে নিতে গেলে ঘটনাস্থলে অবস্থানরত পুলিশ তাদের উদ্ধার করে। খবর পেয়ে কুমিল্লা কোতয়ালী থানা পুলিশ ও র‌্যাব ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং সন্ত্রাসী আজিজুর রহমান আজগর (৩৫), উজ্জ্বল (৩২), মিন্টু (৩২), শাহাদাৎ (৩০), রেখা বেগম, রাশেদা আক্তার, সুরাইয়াকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এবং একটি দেশীয় তৈরি পাইপ গান উদ্ধার করে।
এলাকাবাসী জানায়, গত ৩ সেপ্টেম্বর স্থানীয় আজগর ও ফয়সল গ্রুপের সাথে জমি সংক্রান্ত বিষয়ের জের ধরে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে আজগর, ফয়সাল সহ বেশ কয়েকজন আহত হয়। ওই সময় তাদের গুরুতর অবস্থায় ঢাকায় চিকিৎসা দেয়া হয়। এ ঘটনায় কয়েকদিন যাবত সুজানগর এলাকায় উত্তপ্ত অবস্থা বিরাজ করছিল। একে অপরের বাড়ী ঘর হামলা সহ দোকানপাট ভাংচুর করে ব্যাপক ক্ষায়ক্ষতি করে। ঘটনায় উভয় পক্ষই কুমিল্লা কোতয়ালী থানায় মামলা দায়ের করে। গতকাল শুক্রবার এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ফয়সাল গ্রুপের লোজনক আজগরের বাড়ীঘরে হামলা চালায়।
সাংবাদিকদের কর্তব্যকাজে বাধা, ক্যামেরা ছিনিয়ে নিয়ে তাদের উপর হামলার প্রতিবাদে স্থানীয় সাংবাদিকরা তাৎক্ষণিভাবে উক্ত ঘটনার তীব্র নিন্দা ও অনতিবিলম্বে অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবি জানান।
এ ব্যাপারে কোতয়ালী মডেল থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ত্তসি) মহিউদ্দিন মাহমুদ জানান, ঘটনার সাথে জড়িত ৭ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকীদের গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অভ্যাহত রয়েছে। পরিস্থি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্তলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। সাংবাদিক আহত ঘটনাটি অত্যন্ত দুঃখ জনক।

সাংবাদিকের উপর হামলার ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ
গত ১৭ সেপ্টেম্বর শহরের সুজানগরে দু’গ্রুপের সংঘর্ষের খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে স্থানীয় সন্ত্রাসীদের হামলায় কুমিল্লায় কর্মরত সাহ ৫ সাংবাদিক আহত হয়ায় বিভিন্ন মহল থেকে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। আহত দৈনিক রূপসী বাংলার স্টাফ রিপোর্টার বাহার রায়হান, আইএনবি বার্তা সংস্থার কুমিল্লা প্রতিনিধি দেলোয়ার হোসেন জাকির, দৈনিক সমকাল ও বিটিভির ফটো সাংবাদিক এন.কে রিপন, দৈনিক কুমিল্লার কাগজের স্টাফ রিপোর্টার হুমায়ন কবির জীবন আহত হয়। স্থানীয় সন্ত্রাসীরা তাদের ৪ জনের ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয়া সহ তাদের শারীরিক ভাবে লাঞ্চিত করে পরে পুলিশ ও স্থানীয় কয়েকজনের সহযোগীতায় ক্যামেরাগুলো উদ্ধার করে তাদেরকে নিরাপদ স্থানে নিয়ে আসা হয়। সন্ত্রাসীরা সাংবাদিকদের শরিরের বিভিন্ন অংশে রক্তাক্ত ও জখম করে। সাংবাদিকদের উপর হামলার সময় সন্ত্রাসীরা তাদের অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে কর্তব্য কাজে বাধা প্রদান ও স্থান ত্যাগ না করলে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এ ঘটনায় কুমিল্লা বিভিন্ন মহল নিন্দা জানায়। ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে কুমিল্লা প্রবীন সাংবাদিকরা ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতারের দাবী জানান। সাংবাদিকদের আহত হওয়ার ঘনায় সংঘষংস্থানে ছুটে আসেন বিটিভি ও সমকাল কুমিল্লা প্রতিনিধি মাসুক আলতাফ চৌধুরী, দৈনিক সংগ্রাম এর কুমিল্লা প্রতিনিধি আমিনুল হক, কুমিল্লার কাগজ সম্পাদক আবুল কাসেম হৃদয়, দৈনিক প্রথম আলো কুমিল্লা প্রতিনিধি গাজী উল হক সোহাগ, ফটো সাংবদিক এম সাদেক, দৈনিক ইনকিলাব এর কুমিল্লা প্রতিনিধি সাদেক হোসেন মামুন, দৈনিক জনকন্ঠের কুমিল্লা প্রতিনিধি শাকিল মোল্লা, দৈনিক কুমিল্লার কাগজ এর স্টাফ রিপোর্টার মনির হোসেন সহ স্থানীয় বিভিন্ন পত্রিকায় দায়িত্বরত সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানান এবং সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবী জানান।

Check Also

কুসিক নির্বাচন সুষ্ঠু নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ করার দাবি বিএনপির

সৌরভ মাহমুদ হারুন :– কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন (কুসিক) নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ পুলিশ প্রশাসনকে ব্যবহার ...

Leave a Reply