কুমিল্লায় মাদক ব্যবসায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ ॥ ২ পুলিশসহ আহত ২০

দেলোয়ার হোসেন জাকির :
কুমিল্লায় মাদক ব্যবসা ও জুয়া খেলায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের ধর্মপুর এলাকায় ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। বিবদমান দু’গ্রূপের ওই সংঘর্ষে পুলিশসহ অন্তত ২০ জন নারী-পুরুষ আহত হয়েছে। ভাংচুর করা হয়েছে পুলিশের একটি গাড়ি। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘ দিন যাবৎ শহরের ধর্মপুর এলাকার রেল গেইটের অদূরের বস্তিতে মাদক ও জুয়া খেলায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে স্থানীয় আলমগীর ও বাগা-হাসু গ্রূপের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। গত মঙ্গলবার বিরোধের জের ধরে আলমগীরের ছোট ভাই আঃ রহমানের সাথে অপর গ্রূপের বাকবিতন্ডা ও হাতাহাতি হয়। এ ঘটনার জের ধরে রাতে আলমগীরের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান তমাল ষ্টোরে হামলা চালায় প্রতিপক্ষ গ্রূপ।এ নিয়ে বুধবার থানায় মামলা হয়। বৃহস্পতিবার সকালে আলমগীর গ্রূপের লোকজন মামলায় অভিযুক্ত প্রতিপতক্ষ গ্রূপের রোকন কে বেধরক মারধর করে পুলিশে সোপর্দ করে। এতে বাগা-হাসু গ্রূপের লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে আলমগীরৈর বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় উভয় গ্রূপ সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। খবর পেয়ে কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে আলমগীর গ্রূপের লোকজন পুলিশের গাড়িতে হামলা ও ভাংচুর চালায়। হামলায় আহত হয় থানার এসআই সাইফুদৌল্লাহ ও গড়ি চালকসহ উভয় গ্রূপের অন্তত ২০ জন। আহতদের মধ্যে আশংকাজনক অবস্থায় আলমগীর হোসেন, তার স্ত্রী রোকেয়া আক্তার, ভাই আবদুর রহমান, চাচা জিনু ড্রাইভার ও মামুনকে কুমেক হাসপাতালে এবং প্রতিপক্ষ বাঘার স্ত্রী অন্তস্বত্ত্বা শিল্পী আক্তারকে কুমিল্লা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশের গাড়িতে হামলা ও ভাংচুরের অভিযোগে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ আলমগীর গ্রূপের আবুল কাসেম (কাসু) কে আটক করেছে। সন্ধ্যায় কোতয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মহিউদ্দিন মাহমুদ জানান, পুলিশের গাড়িতে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।

Check Also

কুসিক নির্বাচন সুষ্ঠু নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ করার দাবি বিএনপির

সৌরভ মাহমুদ হারুন :– কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন (কুসিক) নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ পুলিশ প্রশাসনকে ব্যবহার ...

Leave a Reply