ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় ভিজিএফের চাল আত্মসাতের অভিযোগ

কসবা (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি:
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় ভিজিএফের চাল আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। জানা গেছে, পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে উপজেলার কাইমপুর ইউনিয়নে ১০ সেপ্টেম্বর ৭৮৬ জন দুঃস্থ ভিজিএফ কার্ডধারীর মধ্যে চাল বিতরণের কথা ছিল। কিন্তু ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. হেবজুল বারী ও ইউপি সচিব মো. সানু মিয়ার যোগসাজশে ডিলার আওয়ামী লীগ নেতা নান্নু মিয়া প্রকৃত কার্ডধারীদের চাল বিতরণ না করে ভুয়া জাল স্বাক্ষর ও টিপসহি প্রদান করে ৪৫০ কেজি চাল আত্মসাত করে। খবর পেয়ে ওইদিন বিকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহমদ কবীর কাইমপুর ইউনিয়নের মইনপুর গ্রামের আরব আলীর পুত্র কাউছারের ঘর থেকে ১৯১ কেজি চাল উদ্ধার করেন। ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার জন্য তড়িঘড়ি করে উপস্থিতিদের মধ্যে ১৯১ কেজি চাল বিতরণ করা হয়। অবশিষ্ট ২৫৯ কেজি চাল ইউনিয়নের চৌকিদার মোখলেছ নিয়ে যায় বলে গ্রামবাসী জানায়। ফলে প্রকৃত দুঃস্থ ভিজিএফ কার্ডধারীরা চাল না পেয়ে ঈদের আনন্দ থেকে বঞ্চিত হয়। এ বিষয়ে কাইমপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হেবজুল বারীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, কার্ডধারীদের মধ্যে চাল বিতরণ করার জন্য ৩ বস্তা চাল কাউছারের বাড়িতে রাখা হয়। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহমদ কবীরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে যথাযথভাবে চাল বিতরণ করা হয়েছে বলে জানান।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...