কুমিল্লায় অপহৃত ব্যবসায়ীকে ৩ দিন পর ফেনী থেকে উদ্ধার, আটক ৪


সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, ২৬ আগস্ট ২০১০ (কুমিল্লাওয়েব ডটকম) :
জেলার চৌদ্দগ্রামে মঞ্জুরুল আলম নামের এক ব্যবসায়ীকে অপহরণের ৩ দিন পর পুলিশ ও র‌্যাব বুধবার গভীর রাতে ফেনী থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ সময় অপহরণের সাথে জড়িত ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে গ্রেফতারকৃত অপহরণকারী চক্রের ৪ সদস্যকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।
পুলিশ ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার গুণবতী ইউনিয়নের কুঞ্জশ্রীপুর গ্রামের আবদুল কাদেরের ছেলে মঞ্জুরুল আলম গুণবতী বাজারের ফুলের নাওড়ী শাড়ী বিতানের মালিক। গত সোমবার সন্ধ্যায় সে বাড়ি থেকে দোকানে যাওয়ার পথে পদুয়া-গুণবতী সড়কে পৌঁছুলে একই গ্রামের মফিজুর রহমানের ছেলে মহিনের নেতৃত্বে ৮ জনের অপহরণকারী চক্র জোরপূর্বক তাকে মাইক্রোতে তুলে নেয়। তারা ওই ব্যবসায়ীর চোখ মুখ বেধে সঙ্গে থাকা ১ লাখ ২১ হাজার ১৬৭ টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয় এবং নোয়াখালীর চরাঞ্চলের একটি নির্মাণাধীন বাড়িতে নিয়ে তাকে আটক েেখ মারধর করে। অপহরণকারীরা মোবাইল ফোনে প্রথমে ১০ লাখ, পরে ৭ লাখ এবং শেষ পর্যায়ে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। এসময় অপহরণকারীরা ফেনীর এস.এ পরিবহন, মহিপাল, ট্রাংক রোড, সিলোনিয়া ও মাইজদীর বিভিন্ন ঠিকানা ব্যবহার করে রসুল এবং রিপন নামের দুই ব্যক্তির নিকট মুক্তিপণের টাকা দেয়ার জন্য বলে। অন্যথায় মঞ্জুরুলকে হত্যা করা হবে বলে বারবার হুমকি দিতে থাকে। ঐ ব্যবসায়ীকে উদ্ধারে তার পরিবার ব্যর্থ হয়ে চৌদ্দগ্রাম থানায় জিডি ও বুধবার বিকেলে কুঞ্জশ্রীপুর গ্রামের মহিন উদ্দিন রিপন, মিন্টু ও আলমসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৮/১০ জনের বিরুদ্ধে একটি অপহরণ মামলা রজু করে। মামলার সূত্র ধরে পুলিশ সন্ধ্যায় ঐ গ্রামের মিন্টু (২৯) ও জাহাঙ্গীর আলমকে (২৮) তাদের বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত দু’ জনের মোবাইলের কললিষ্টের সূত্র ধরে পুলিশ অপহরণকারী চক্রের অন্য সদস্যদের সাথে মুক্তিপণের টাকা পরিশোধ ও অপহৃত ব্যবসায়ীকে ছেড়ে দেয়ার চুক্তি করে। অপহরণকারী চক্রের সদস্য ফেনীর বালিগাঁও গ্রামের গাজী হেলাল উদ্দিন জাহিদ (৩২) ও পূর্ব সিলোনিয়া গ্রামের জাহাঙ্গীর আলম (৩০) মুক্তিপণের টাকা নিতে ফেনীর ট্রাংক রোডে এলে পূর্ব থেকে ওঁৎপেতে থাকা র‌্যাব-৭ এর ডিএডি আবুল কাশেম ও চৌদ্দগ্রাম থানার এসআই মনির হোসেনের নেতৃত্বে র‌্যাব-পুলিশ তাদের আটক করে র‌্যাব কার্যালয়ে নিয়ে যায়। আটক দুই ব্যক্তির সাথে মুক্তিপণের টাকা পাওয়ার বিষয়ে কথা বলাকালে অপহরণকারী চক্রের অন্য সদস্যরা তাদের দু সদস্য র‌্যাব-পুলিশের হাতে আটকের বিষয়টি জানতে পারে। এরপর ওই অপহরণকারীরা মোবাইল ফোনে র‌্যাব-পুলিশের সাথে আটক দু ব্যক্তির বিনিময়ে অপহৃত ব্যবসায়ীকে ছেড়ে দেওয়ার চুক্তি করে। চুক্তি মোতাবেক অপহৃত ব্যবসায়ীকে নিয়ে অপহরণকারী চক্রটি ফেনীর পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের কাছাকাছি পৌঁছুলে র‌্যাব-পুলিশ তাদের ধাওয়া করে। এসময় অপহরণকারী চক্র ব্যবসায়ী মঞ্জুরুল আলমকে রেখে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে গ্রেফতারকৃত অপহরণকারী চক্রের ৪ সদস্যকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ জানায়, অপহরণকারী চক্রের অন্য সদস্যদেরকে আটকের চেষ্টা চলছে।

Check Also

কুসিক নির্বাচন সুষ্ঠু নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ করার দাবি বিএনপির

সৌরভ মাহমুদ হারুন :– কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন (কুসিক) নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ পুলিশ প্রশাসনকে ব্যবহার ...

Leave a Reply