ঢাকা-চট্টগাম মহাসড়ক যানজট মুক্ত করতে নিমসারে উচ্ছেদ অভিযান

মাসুমুর রহমান মাসুদ, স্টাফ রিপোর্টার :
ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক যানজট মুক্ত রাখতে এবং মহাসড়ককে চারলেইন-এ নির্মিত করার লক্ষে সড়ক পাশ্বস্থ জায়গা অবৈধ দখল মুক্ত করতে ২৪ আগস্ট সকাল ১১টার কুমিল্লার নিমসার বাজারে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে সড়ক ও জনপদ বিভাগ। সড়ক ও জনপদ বিভাগের সূত্রে জানা যায়, মহাসড়কের যে স্থানগুলোতে অবৈধ ভাবে দোকান পাট নির্মাণ করে যানজট সৃষ্টি করছে পর্যায়ক্রমে সম্পূর্ণ এলাকায় এ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হবে। গতকাল সকাল ১১টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীন ভাবে সড়ক ও জনপদ বিভাগের নিজস্ব সম্পত্তি পুনরুদ্ধারে প্রায় ৫শ দোকান পাট উচ্ছেদ করা হয়। কুমিল্লা সড়ক ও জনপদ বিভাগের বিভাগীয় উপ-প্রকৌশলী মোঃ জাহেদ হোসেনের নেতৃত্বে এবং জেলা প্রশাসক কুমিল্লা কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আঃ আউয়ালের সহযোগিতায় বুড়িচং থানার এস.আই মোঃ মুজিবুর রহমান ও সঙ্গীয় ফোর্সসহ এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

এদিকে মাত্র ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটামে এ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করায় শতশত ব্যবসায়ীদের মাথায় হাত পড়েছে। ওই বাজারের আড়ৎদার মাসুদুর রহমান, সুমন, আবু তাহেরসহ অনেক বলেন, আমাদেরকে কিছু দিনের সময় দিলে আমরা আমাদের মালামাল গুলো সড়িয়ে নিতে পারতাম। হঠাৎ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করায় আমাদের অনেক মালামাল লুট হয়ে যায়। আমরা এখানে দীর্ঘদিন যাবৎ ব্যবসা করিয়া আসিতেছি। যদিও এ জায়গা আমাদের নয় কিন্তু আমরা প্রতি মাসে মালিক পক্ষকে নিয়মিত ভাড়া প্রদান করিতেছি। সড়ক ও জনপদের জায়গার মালিক সম্পর্কে জানতে চাইলে তারা জানান, যাদের থেকে সরকার এ সম্পত্তি ক্রয় করে পরিবর্তীতে ওই মালিকরাই অস্থায়ী ভিত্তিত্বে মালিকানা দাবী করে দোকান-পাট ভাড়া দেয় এবং সে দোকানগুলো আমার দীর্ঘদিন যাবৎ ভাড়াটিয়া হিসেবে ব্যবসা করিয়া আসিতেছি। কথা হয় মালিক দাবীদার ছিদ্দিুকুর রহমান মাষ্টারের পুত্র আব্দুল কাদের জিলানীর সাথে। তিনি জানান, সরকার আমাদের কাছ থেকে এ সম্পত্তি ক্রয় করে আমাদেরকে ৯০% মূল্য দেয় বাকি ১০% মূল্যের বিনিময়ে আমরা এ সম্পত্তি ভোগ দখল করিতেছি। যদিও বর্তমানে এ সম্পত্তি সড়ক ও জনপদের আমরা তা অস্বীকার করতে পারি না। তবে আমাদেরকে কিছুদিন সময় দিলে আমরা নিজেরাই তা সড়িয়ে নিতে পারতাম। তাহলে আমাদের এতো বড় ক্ষতি হত না।

আবার ওই বাজারের ইজারাদার হুমায়ূন কবির জানান, তিনি বাৎসরিক ৬৫ লক্ষ ৫০ হাজার টাকায় এ বাজারটি ইজারা আনেন। কিন্তু এ উচ্ছেদে বিভিন্ন আড়ৎদারদের দোকান-পাটগুলো উচ্ছেদ করায় এখন আর ওই রকম বাজার জমে উঠবে না। যার কারণে তিনি বড় ধরনের ক্ষতির সম্মুক্ষীণ হবেন বলে হতাশায় ব্যক্ত করেন।

এদিকে দৈনিক কাঁচা বাজারের কোন ক্ষতি হবে না বলে সড়ক ও জনপদ বিভাগের বিভাগীয় উপ-প্রকৌশলী মোঃ জাহেদ হোসেন জানান, কুমিল্লা জেলার বিখ্যাত কাঁচা বাজার এ নিমসার বাজার। আমাদের এ উচ্ছেদ অভিযানে কাঁচা বাজার উচ্ছেদ করা হয়নি, উচ্ছেদ করা হয়েছে অবৈধ স্থাপনা। আগামীদিন (আজ ২৫ আগষ্ট) থেকে যথারীতি এ বাজারের কার্যক্রম চলবে এবং মাল গাড়ীতে উঠা-নামা করতে আর কোন অসুবিধাই হবে না এবং মহাসড়কেও কোন যানজটের সৃষ্টি হবে না।

Check Also

মিনি ওয়াক-ইন-সেন্টারের মাধ্যমে রবি’র গ্রাহক সেবা সম্প্রসারণ

ঢাকা :– গ্রাহক সেবাকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে মোবাইলফোন অপারেটর রবি আজিয়াটা লিমিটেড সম্প্রতি মিনি ওয়াক ...

Leave a Reply