যারা খুন করেছে তাদের ছেড়ে দিয়ে, যারা দেখেছে তাদের বিচার করবেন জনগণ তা মেনে নেবে না -এ টি এম আজহারুল ইসলাম


ঢাকা, ০৬ আগস্ট ২০১০ (কুমিল্লাওয়েব ডটকম) :
বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল এ টি এম আজহারুল ইসলাম পাকিস্তান সেনাবাহিনীর চিহ্নিত ১৯৫ জন যুদ্ধাপরাধীকে ফিরিয়ে এনে বিচার করার আহ্বান জানিয়েছেন। এমনটি হলে জামায়াত সরকারকে সহযোগিতা করবে বলেও তিনি আশ্বাস দেন। শুক্রবার বিকেলে মগবাজারের আল-ফালাহ মিলনায়তনে দলের পেশাজীবী প্রতিনিধি সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। আজহারুল ইসলাম বলেন, ‘মরহুম শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৫ জন যুদ্ধাপরাধীকে চিহ্নিত করে গেছেন। তাদের ফিরিয়ে এনে বিচার করুন। আমরা বিচারে সহযোগিতা করব। জনগণও আপনাদের পাশে থাকবে।’
জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল বলেন, ‘একাত্তরের কথা বলে অনেকে আবেগে চোখের পানি ফেলেন, এই আবেগ আমাদেরও আছে। কেন, কার স্বার্থে চিহ্নিত ১৯৫ জন যুদ্ধাপরাধীকে ছেড়ে দেওয়া হলো—এর জবাব একদিন দিতে হবে।’ জামায়াতের নেতারা খুনের সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিল না ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, যারা খুন করেছে তাদের ছেড়ে দিয়ে, যারা খুন দেখেছে তাদের বিচার করবেন—জনগণ তা মেনে নেবে না।
আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সমালোচনা করে আজহারুল ইসলাম বলেন, ‘এই ট্রাইব্যুনাল আন্তর্জাতিক তো দূরের কথা, সিএমএম কোর্টের মতো আচরণও তারা করতে পারছে না। যে আদালত মামলার আগেই আসামিকে শ্যোন অ্যারেস্ট করেন, সে আদালতে আর যা-ই হোক ন্যায়বিচার পাওয়া যাবে না।’ তিনি সরকারকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘শিবির শিক্ষাঙ্গনে ছাত্রদের চরিত্র গঠনের ভূমিকা পালন করছে। সেই ভালো ছেলেদের সন্ত্রাসী বানাবেন না, তাতে ভালো ছেলেরা সন্ত্রাসে উত্সাহী হবে। আর ভালো ছেলেরা সন্ত্রাসী হলে তা কারও জন্যই শুভ হবে না।’
জামায়াত নেতা দাবি করেন, ‘বাংলাদেশে জঙ্গিবাদের উত্থান হয় আওয়ামী লীগের সময়, আর জঙ্গিবাদের দমন হয় চারদলীয় জোট সরকারের সময়।’ তিনি বলেন, বিরোধী দল মাঠে নেই বলে আপনারা মহানন্দে আছেন, এই আনন্দ বেশি দিন থাকবে না। দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেলে জনগণ মাঠে নামবে।

Check Also

মিনি ওয়াক-ইন-সেন্টারের মাধ্যমে রবি’র গ্রাহক সেবা সম্প্রসারণ

ঢাকা :– গ্রাহক সেবাকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে মোবাইলফোন অপারেটর রবি আজিয়াটা লিমিটেড সম্প্রতি মিনি ওয়াক ...

Leave a Reply