মুরাদনগরে অন্যায়ভাবে বাস মালিকের উপর আক্রমন : দারোগাসহ ২পুলিশকে গনধোলাই


স্টাফ রিপোর্টার, মুরাদনগর :
অন্যায়ভাবে বাস মালিকের উপর আক্রমনের জের ধরে উত্তেজিত হয়ে এলাকাবাসী দারোগাসহ ২ পুলিশকে গনধোলাই দিয়ে আটকে রাখে। অবস্থা বেগতিক দেখে ওই পুলিশ কর্মকর্তা তার অপরাধের জন্য প্রকাশ্যে ক্ষমা চেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। শুক্রবার সকাল অনুমান সাড়ে ১১ টায় কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার কোম্পানীগঞ্জ-নবীনগর সড়কের চাপিতলা বাসস্ট্যান্ডে প্রকাশ্য দিবালোকে এ ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, কুমিল্লাগামী একটি ট্রাক (ঢাকা মেট্রো-ট-১১-০১৯৮) সকাল অনুমান ১১ টায় কড়ইবাড়ী নামক স্থানে কোম্পানীঞ্জগামী জনতা পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসকে (সিলেট-জ-৫৪৫৯) চাপা দেয়। এতে বাসের সামনের গ্লাসসহ আংশিক ক্ষতি হয়। অবস্থা খারাপ দেখে ট্রাকটি চাবিসহ বাঙ্গরা বাজারে ফেলে চালক ও হেলপার পালিয়ে যায়। পরে বাসের চালক বাদশা মিয়া ট্রাকটি চাপিতলায় এনে তার নিয়ন্ত্রনে রাখে। বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করলে মুরাদনগর থানার এ.এস.আই ইয়াউর হোসেন কনস্টবল মুকবল হোসেনকে নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে নুরু মিয়ার দোকানে বসে থাকা বাসের মালিক শাহীন মোল্লাকে ডেকে আনে। তখন কোন প্রকার জিজ্ঞাসাবাদ ছাড়াই শাহীন মোল্লাকে চর-থাপ্পর মারতে থাকে। এ সময় উপস্থিত জনতা ক্ষুব্ধ হয়ে পুলিশদের গনধোলাই দিয়ে স্থানীয় নুরু মিয়ার চা-দোকানে নিয়ে আটকে রাখে। অবস্থা বেগতিক দেখে এ.এস.আই ইয়াউর হোসেন প্রকাশ্যে ক্ষমা চেয়ে দ্রুত এলাকা ত্যাগ করেন। সরজমিন পরিদর্শনকালে চাপিতলা এলাকার আর্মি শাহজাহান (৪৫), কামাল আহাম্মদ (৩২), এনামুল হক (৩১) ও ফরিদ উদ্দিন (৫২) জানান, পুলিশ কোন প্রকার জিজ্ঞাসাবাদ ছাড়াই বাস মালিক শাহীন মোল্লার উপর আক্রমন করতে থাকে। তখন নুরু মিয়ার চা-দোকানে বসে থাকা লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে পুলিশকে গনধোলাই দিয়ে আটকে রাখে। পরে পুলিশরা তাদের ভুলের জন্য প্রকাশ্যে ক্ষমা চেয়ে কোনরকমে প্রানে রক্ষা পান।
এ ব্যাপারে মুরাদনগর থানার এ.এস.আই ইয়াউর হোসেন জানান, পত্রিকায় লেখার মতো কিছু ঘটেনি। সামান্য হাতাহাতি হয়েছে মাত্র। ঘটনাটির ব্যাপারে সহকারী পুলিশ সুপার (মুরাদনগর সার্কেল) মোহাম্মদ আয়ুব ও মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা (ওসি) আমিরুল আলম কিছুই জানেন না বলে জানান।

Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply