বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেতা বুলবুল আহমেদের চিরবিদায়


ঢাকা, ১৫ জুলাই ২০১০ (কুমিল্লাওয়েব ডটকম) :
বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে ‘দেবদাস’খ্যাত নায়ক বুলবুল আহমেদ বুধবার রাতে মারা গেছেন। তিনি ডায়াবেটিস, হাইপ্রেশার ও হৃদরোগে ভুগছিলেন। পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, বুধবার রাতে হঠাৎ করে বুকে ব্যথা অনুভব করেন তিনি। সাড়ে ১১টায় তিনি অচেতন হয়ে যান। রাজধানীর উত্তরার বাসভবন থেকে রাত ১টায় স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। মৃত্যুর সময় তার বয়স হয়েছিল ৭০ বছর । বুলবুল আহমেদ স্ত্রী, দুই মেয়ে ও এক ছেলে রেখে গেছেন। বর্তমানে তার মৃতদেহ স্কয়ার হাসপাতালের হিমাগারে রাখা হয়েছে। ১৬ জুলাই শুক্রবার বাদ জুমা গুলশান কেন্দ্রীয় মসজিদে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। ওই দিন বেলা ৩টায় বুলবুল আহমেদের মরদেহ তার কর্মস্থল এফডিসিতে নিয়ে যাওয়া হবে। এফডিসিতে দ্বিতীয় নামাজে জানাজা শেষে মরহুমকে আজিমপুর কবরস্থানে দাফন করা হবে।
বুলবুল আহমেদ সত্তর ও আশির দশকের জনপ্রিয় অভিনেতা। সূর্যকন্যা, রূপালী সৈকতে, সীমানা পেরিয়ে, দেবদাস, শ্রীকান্ত, মহানায়ক, বড় ভালো লোক ছিল, দি ফাদারসহ বহু জনপ্রিয় ছবির নায়ক ছিলেন তিনি। এইসব দিনরাত্রি, ইডিয়টসহ বহু জনপ্রিয় টিভি নাটকেও তিনি অভিনয় করেন। তার পরিচালনায় বেশ কিছু টিভি নাটক বিভিন্ন চ্যানেলে প্রচারিত হয়েছে। ১৯৬০ সালে অভিনেতা বুলবুল আহমেদ গ্রুপ থিয়েটার ড্রামা সার্কেলে যোগ দেন এবং ইডিপাস ও আর্মস অ্যান্ড দ্য ম্যানÑএ অভিনয় করেন । প্রথম টিভিনাটকে অভিনয় করেন ১৯৬৮ সালে। বড়পর্দায় তার অভিষেক হয় ১৯৭৩ সালে। ব্যাংকের চাকরি ছেড়ে তিনি ১৯৭৪ সাল থেকে চলচ্চিত্রে নিয়মিত হন এবং প্রায় দুই দশক দাপটের সঙ্গে অভিনয় চালিয়ে যান। বুলবুল আহমেদ চারবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন।বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে ‘দেবদাস’খ্যাত নায়ক বুলবুল আহমেদ বুধবার রাতে মারা গেছেন। তিনি ডায়াবেটিস, হাইপ্রেশার ও হৃদরোগে ভুগছিলেন। পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, বুধবার রাতে হঠাৎ করে বুকে ব্যথা অনুভব করেন তিনি। সাড়ে ১১টায় তিনি অচেতন হয়ে যান। রাজধানীর উত্তরার বাসভবন থেকে রাত ১টায় স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। মৃত্যুর সময় তার বয়স হয়েছিল ৭০ বছর । বুলবুল আহমেদ স্ত্রী, দুই মেয়ে ও এক ছেলে রেখে গেছেন। বর্তমানে তার মৃতদেহ স্কয়ার হাসপাতালের হিমাগারে রাখা হয়েছে। ১৬ জুলাই শুক্রবার বাদ জুমা গুলশান কেন্দ্রীয় মসজিদে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। ওই দিন বেলা ৩টায় বুলবুল আহমেদের মরদেহ তার কর্মস্থল এফডিসিতে নিয়ে যাওয়া হবে। এফডিসিতে দ্বিতীয় নামাজে জানাজা শেষে মরহুমকে আজিমপুর কবরস্থানে দাফন করা হবে।
বুলবুল আহমেদ সত্তর ও আশির দশকের জনপ্রিয় অভিনেতা। সূর্যকন্যা, রূপালী সৈকতে, সীমানা পেরিয়ে, দেবদাস, শ্রীকান্ত, মহানায়ক, বড় ভালো লোক ছিল, দি ফাদারসহ বহু জনপ্রিয় ছবির নায়ক ছিলেন তিনি। এইসব দিনরাত্রি, ইডিয়টসহ বহু জনপ্রিয় টিভি নাটকেও তিনি অভিনয় করেন। তার পরিচালনায় বেশ কিছু টিভি নাটক বিভিন্ন চ্যানেলে প্রচারিত হয়েছে। ১৯৬০ সালে অভিনেতা বুলবুল আহমেদ গ্রুপ থিয়েটার ড্রামা সার্কেলে যোগ দেন এবং ইডিপাস ও আর্মস অ্যান্ড দ্য ম্যানÑএ অভিনয় করেন । প্রথম টিভিনাটকে অভিনয় করেন ১৯৬৮ সালে। বড়পর্দায় তার অভিষেক হয় ১৯৭৩ সালে। ব্যাংকের চাকরি ছেড়ে তিনি ১৯৭৪ সাল থেকে চলচ্চিত্রে নিয়মিত হন এবং প্রায় দুই দশক দাপটের সঙ্গে অভিনয় চালিয়ে যান। বুলবুল আহমেদ চারবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন।

Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply