নেপালে ধূমপান নিষিদ্ধ

জুন ০২,২০১০ (কুমিল্লাওয়েব ডট কম) :
নেপালে রেস্টুরেন্ট, বার ও অন্যান্য লোকসমাগম এলকাগুলোতে ধূমপান নিষিদ্ধ করছে সরকার। একইসঙ্গে নিষিদ্ধ করা হচ্ছে সব ধরনের তামাকের বিজ্ঞাপনও। তরুণ স�প্রদায়কে ধূমপান থেকে ফেরাতে এ উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। ধূমপান-বিরোধী একটি নতুন বিলে ১৬ বছরের কম বয়সী যে কারো জন্য ধূমপান অবৈধ বলে বিবেচিত হবে। সেইসঙ্গে সিগারেটের প্যাকেটে স্বাস্থ্য সতর্কীকরণ বার্তা বাধ্যতামূলক করা হবে। তাছাড়া, আইন অমান্যকারী ব্যক্তিদের জন্য ৫ হাজার রুপি এবং তামাক কোম্পানীগুলোর জন্য ১ লাখ রুপি জরিমানাও ধার্য করা হবে নতুন আইনে, এএফপিকে একথা জানিয়েছেন নেপালের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা বাল সাগর গিরি। বিলটি নিয়ে স�প্রতি পার্লামেন্টে বিতর্ক চলছে বলেও জানান তিনি।
গিরি বলেন, “তামাকের বিজ্ঞাপনে তরুণরা খুব বেশি আকৃষ্ট হচ্ছে। এর অবসান হওয়া দরকার।” কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার এটিই মোক্ষম সময় বলে মন্তব্য করেন তিনি।
সরকারের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, নেপালে প্রতিবছর প্রায় ১৫ হাজার লোক ধূমপানজনিত রোগে মারা যায়। ২০০৬ সালে নেপালের সুপ্রিম কোর্ট সরকারকে জনসমাগম এলাকায় ধূমপান নিষিদ্ধ করা এবং গণমাধ্যমে সব ধরনের তামাকের বিজ্ঞাপন বন্ধের নির্দেশ দেয়। কিন্তু এ আইন কখোনো বাস্তবায়িত হয়নি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, ধূমপানের কারণে বিশ্বে প্রতিবছর প্রায় ৫০ লাখ লোক মারা যায়।
আগামী দুই দশকে ধূমপানের কারণে প্রায় এক কোটি লোক মারা যাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এর মধ্যে উন্ন্য়নশীল দেশগুলোতে মারা যাবে ৭০ শতাংশ মানুষ।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...