ফেনীতে আধিপত্য বিস্তার ও যুবলীগের অন্তঃকলহের জের ধরে দিনদুপুরে যুবলীগ কর্মীকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা

ফেনী প্রতিনিধি:
ফেনী শহরের বিরিঞ্চি এলাকার আতিকুল আলম সড়কে বুধবার দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী আবু সাঈদকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষরা। স্থানীয় আধিপত্য বিস্তার ও যুবলীগের অন্তঃকলহের জের ধরে এ হত্যাকা- হয়েছে বলে জানা যায়।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, স্থানীয় বাসিন্দা আফজাল রহমানের ছেলে আবু সাঈদ (২৪) যুবলীগের সক্রিয় কর্মী হিসেবে পরিচিত। এলাকার আধিপত্য বিস্তার নিয়ে মানিক ও আরিফসহ দলীয় কর্মীদের সঙ্গে তার দীর্ঘদিনের বিরোধ চলছিল। আবু সাঈদ গতকাল দুপুরের খাবার শেষে ঘুমাতে যায়। এ অবস্থায় তাকে ফোনে ডেকে নিয়ে বাসার অদূরে উপর্যুপরি কুপিয়ে ও পরে গুলি করে হত্যার পর ফেলে রাখা হয়। গুলির শব্দ শুনে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে আবু সাঈদের লাশ দেখতে পায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে ফেনী সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।
পুলিশের এসআই ফিরোজ জানান, আবু সাঈদ পুলিশের মোস্ট ওয়ান্টেড আসামি। তাকে ধরতে পুলিশ দীর্ঘদিন খুঁজছিল। তিনি জানান, প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা তাকে নির্মমভাবে কুপিয়ে ও গুলি করার পর হাত-পায়ের রগ কেটে মৃত্যু নিশ্চিত করে ফেলে যায়। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা ও আতঙ্ক বিরাজ করছে।
এদিকে আবু সাঈদের হত্যার খবর জানাজানি হলে শত শত লোক তার লাশ দেখতে বায়তুল খায়ের জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে ভিড় জমায়। আফজালের রহমান তার সন্তানের লাশের সামনে দাঁড়িয়ে জানান, এলাকার মানিক, আরিফ ও তাদের সহযোগীরা সাঈদকে হত্যা করেছে। তিনি বলেন, প্রায় বছর দেড়েক আগে সাঈদকে একই কায়দায় হত্যার উদ্দেশ্যে কুপিয়ে গুরুতর জখম করা হয়েছিল। এলাকাবাসী জানায়, ঘটনার পর সন্ত্রাসীরা গা-ঢাকা দিয়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...