কুমিল্লায় যক্ষ্মা নিয়ন্ত্রণে গোলটেবিল বৈঠকে বক্তারা বিশ্বে ২ মিনিটে ১ জন যক্ষ্মা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে ও ১০ মিনিটে ১ জন মারা যাচ্ছে


কুমিল্লা (উত্তর) প্রতিনিধি :
সারা বিশ্বে ২ মিনিটে ১ জন যক্ষ্মা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে ও ১০ মিনিটে ১ জন রোগী মারা যাচ্ছে। এভাবে বছরে সারা বিশ্বে ৩০ লাখ লোক এ রোগে মৃত্যুবরণ করে। একজন যক্ষ্মারোগী মৃত্যুর আগে আরো ১০ জনকে যক্ষ্মা রোগী বানিয়ে মারা যায়। যক্ষ্মা রোগে বিশ্বের এ ভয়াবহ চিত্র থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। কুমিল্লায় ২০০১ সাল থেকে যক্ষ্মা নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম শুরু হয়ে ২০০৯ সাল পর্যন্ত ৪ হাজার ৫২৮ জন রোগীকে সনাক্ত করেছে। এ সময়ে ৯২ শতাংশ রোগীকে চিকিৎসা সেবা দিয়ে আরোগ্য করে তোলা হয়েছে। রোববার কুমিল্লায় যক্ষ্মা নিয়ন্ত্রণ-সামাজিক অংশগ্রহণ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে বক্তারা এসব তথ্য তুলে ধরেন।
কুমিল্লা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের এসএ বারী সম্মেলন কক্ষে জাতীয় যক্ষ্মা নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচি, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়, কুমিল্লা প্রেসক্লাব ও ব্র্যাক আয়োজিত গোলটেবিল বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কুমিল্লার জেলা প্রশাসক মোঃ জামাল হোসাইন। কুমিল্লার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ সমীর কান্তি সরকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কুমিল্লার পুলিশ সুপার মোহাঃ শফিকুল ইসলাম, কুমিল্লা প্রেসক্লাব সভাপতি রমিজ খান, সাধারন সম্পাদক মোঃ লুৎফুর রহমান, ব্র্যাক’র সোশ্যাল কমিউনিকেটর এইচএম মঞ্জুরুল আজিম, বক্ষব্যাধি বিশেষজ্ঞ ডাঃ মোঃ মাহফুজুল হক, ব্র্যাক জেলা স্বাস্থ্য কর্মসূচির ব্যবস্থাপক মোঃ ফজলুর রহমান, প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর শাহ আলম, কুমিল্লা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মোঃ সহিদ উল্লাহ প্রমুখ । এতে সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন জেলা বিএমএ কুমিল্লার সাধারণ সম্পাদক ডাঃ আজিজুর রহমান সিদ্দিকী। বক্তারা যক্ষ্মা নিয়ন্ত্রণে গণসচেতনতা সৃষ্টিসহ প্রত্যন্ত অঞ্চলে এর ব্যাপক প্রচারণার উপর গুরুত্বারোপ করেন। এ সময় শহরের ছোটরা কলোনীর ফজলুর রহমান (৬৫) নামের একজন যক্ষ্মা রোগীকে চিকিৎসা সেবা দিয়ে আরোগ্য করার বিষয়ে ওই রোগীর বক্তব্য উপস্থাপন করা হয়।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...