দেবিদ্বারে ১৩ মন্দিরে চুরি ।। রাধাকৃষ্ণ মূর্তি উদ্ধার


দেবিদ্বার প্রতিনিধি :
দেবিদ্বার উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে ১৩টি মন্দিরে (পুলিশের তালিকামতে) চুরি হয়। বিশেষ করে এলাহাবাদ গ্রামের সাংবাদিক বিজন কুমার চক্রবর্তী ও ন্যাপ (মোজাফফর) এর সম্পাদকীয় মন্ডলীর সদস্য অনিল ঠাকুরের বাড়ির বৃষ্ণ মন্দির, মোহনপুর ইউনিয়নের গাদিসাইর আশ্রমসহ এলাকার বেশ কয়েকটি মন্দিরে ১৫ দিনে এসব চুরির ঘটনা ঘটেছে। চুরির ৯ দিনের মাথায় পুলিশ ৪ জন চোরসহ মূর্তি উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে। চোরেরা বিভিন্ন মন্দিরের তালা ভেঙ্গে দরজা খুলে মন্দিরে থাকা বিগ্রহ মূর্তি, রুপার খরম, স্বর্ণের তুলসি, টিপ, চাঁন, পূজার কাপড়, ঘন্টা, পিতলের থালা বাসন। মন্দিরে থাকা দান বাক্স ভেঙ্গে টাকা পয়সা নিয়ে যেত। এ ব্যাপারে পৃথক পৃথক জিডিও হয়েছে থানায়। উপজেলার ফুলতলী গ্রামের ছায়েদ আলীর পুত্র মোঃ জালাল উদ্দিন চুরির উদ্দেশ্যে এলাহাবাদ বিদ্যালয়ের শ্রেণী কক্ষের তালা ভেঙ্গে ভিতরে অবস্থান করছিল। এবস্থায় নৈশ প্রহরী তাকে দেখে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলামকে বিষয়টি জানান। চেয়ারম্যান থানার সাহায্য চাইলে পুলিশ রাতে জালাল উদ্দিনকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে। পরে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে মুরাদনগর উপজেলার বাখরনগর গ্রামের নান্নু বেপারীর ছেলে জসিম উদ্দিনের কোম্পানীগঞ্জ বাজারে ‘‘জসিম এ্যালমুনিয়াম’’ নামক দোকান থেকে রাধা- কৃষ্ণ বিগ্রহ মূর্তি দুটি ও দুটি পিতলের মগ উদ্ধার করে। জসিমকে আটক করে জেলহাজতে পাঠিয়ে দেয় তবে তার কাছে আরও মালামাল থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। জেলহাজতে পাঠানোর পর ২ জনকে পুলিশ রিমান্ডে এনেছে। এ বিষয়ে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ জাহিদুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, আটককৃত ৪ জনের ২ জন পরিবহন শ্রমিক আর ২ জন পেশাদার চোর। মন্দির গুলোতে চুরি করতে সহজ বিধায় তারা বিভিন্ন মন্দিরে চুরি করেছিল। ২ জনকে জিজ্ঞাসাবাদে তথ্য দিয়েছে দাউদকান্দির বিভিন্ন দোকানে তারা চুরি করা মালামাল বিক্রি করেছে। চুরি হওয়া কিছু মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে বাকি মালামাল উদ্ধারের চেষ্ঠা অব্যাহত।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...