মুরাদনগরে ওষুধের দোকানের ভিতরে পল্লী বিদ্যুতের বিপদজনক খুঁটিঃ দুর্ঘটনার আশংকা

মুরাদনগর উপজেলার কোম্পানীগঞ্জ-নবীনগর সড়কের বাখরনগর বাজারে এ ওষুধের দোকানে পল্লী বিদ্যুতের বিপদজনক খুঁটি। আর ঐ খুটি থেকে যে কোন মুহুর্তে দুর্ঘটনার আশংকা করা হচ্ছে।........... ছবি-হাবিব
মুরাদনগর উপজেলার কোম্পানীগঞ্জ-নবীনগর সড়কের বাখরনগর বাজারে এ ওষুধের দোকানে পল্লী বিদ্যুতের বিপদজনক খুঁটি। আর ঐ খুটি থেকে যে কোন মুহুর্তে দুর্ঘটনার আশংকা করা হচ্ছে।........... ছবি-হাবিব
মো. হাবিবুর রহমান, মুরাদনগর থেকে
মুরাদনগর উপজেলার কোম্পানীগঞ্জ-নবীনগর সড়কের বাখরনগর বাজারে মাষ্টার ফার্মেসীর ভিতরে ৩ বছর যাবত একটি বৈদ্যুতিক খুঁটি বিদ্যমান রয়েছে। যাহাতে বিপদজনক ভাবে ১১০০ ভোল্টের ৩টি ট্রান্সফরমার রয়েছে। পল্লী বিদ্যুতের এ অবহেলার কারনে যে কোন সময় বৈদ্যুতিক দুর্ঘটনা ঘটে প্রানহানীর আশংকা করা হচ্ছে।
ফার্মেসীর মালিক সফিকুল ইসলাম জানান, বিপদজনক এ খুঁটি সরিয়ে নেয়ার জন্য পলী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষকে বার বার বলার পরও কোন প্রদক্ষেপ নেয়নি। ফলে বাধ্য হয়ে গত বছরের ১৭ ডিসেম্বর কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর জেনারেল ম্যানেজারকে লিখিত ভাবে আবেদন করি (যার রশিদ নং-৪৮৪৫৬৬)। কিন্তু দীর্ঘ ৫ মাস হতে চললেও পল্লী বিদ্যুতের খামখেয়ালী ও অব্যবস্থাপনায় রহস্যজনক কারণে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কার্যকর কোন প্রকার ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।
এ দিকে কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর আওতাধীন কোম্পানীগঞ্জ জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার গোলাম রব্বানী জানান, খুঁটি স্থাপনের সময় দোকান ছিল না। পরবর্তীতে দোকান কর্তৃপক্ষ বিপদজনক জেনেই খুঁটিটি ভিতরে রেখেই দোকান স্থাপন করেছেন। আর খুঁটি সরিয়ে নেয়ার জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ থেকে এখনো আমার কাছে কোন প্রকার নির্দেশ আসেনি।
অপর দিকে কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর নব-নির্বাচিত কোষাধ্যক্ষ শাহেদুল আলম শাহেদ জানান, বিষয়টি আমার নজরে রয়েছে। ইচ্ছা করলেই বিদ্যুতের খুঁটি কিংবা লাইন স্থানান্তর করা যায় না, সব কিছুরই একটা সীমাবদ্ধতা আছে। চিন্তা ভাবনা চলছে বিষয়টি কি করা যায়।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...