আড়াই’শ বেডের জনবলে চলে ৫’শ বেড: কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রোগীদের ভোগান্তি

210px-Comilla_Medical_College
স্টাফ রিপোর্টার (কুমিল্লা) :
কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল আড়াই’শ শয্যা থেকে ৫০০’শ শয্যায় উন্নীত করা হয় ২০০৯ সালে। আড়াই’শ বেডের ৩২৪ টি পদ দিয়ে চলছে ৫’শ বেডের কার্যক্রম। ভোগান্তি বাড়ছে রোগীদের। বিশেষ করে নার্স ও ক্লিনার সংকটে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল নোংরা হয়ে পড়েছে। রোগীরা পর্যাপ্ত সেবা পাচ্ছে না। হাসপাতালের প্রশাসনিক সূত্রমতে, আড়াই’শ বেডের মঞ্জুরীকৃত পদ ৩৪৫টি। তার মধ্যে শূন্য আছে ২১টি। প্রথম শ্রেণীর ৬৪টি পদের মধ্যে খালি ৪টি, ৩য় শ্রেণীর ১৭১টির মধ্যে খালি ১২টি, ৪র্থ শ্রেণীর ১০৮টির মধ্যে খালি ৫টি।
চলতি বছরের ১১মার্চ স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৫’শ শয্যার জন্য আরও ১৬৬টি পদের অনুমোদন দিয়েছে। সূত্রমতে অনুমোদন দেয়া পদ গুলো হাসপাতালের জন্য যথেষ্ট নয়। মোট জনবল ৯’শর উপরে হওয়া প্রয়োজন বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের অভিমত।
হাসপাতালের অভ্যন্তরে ঘুরে দেখা যায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে ময়লা পড়ে আছে। সেখান থেকে তীব্র দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। গাইনি ওয়ার্ডে এক রোগী জানান, দুর্গন্ধের মাঝে থাকতে থাকতে অভ্যস্ত হয়ে পড়েছি। তিনবার ডাকলেও একজন নার্স পাওয়া যায়না। সিনিয়র এক নার্স বলেন, ৫’শ বেডের হাসপাতালে নার্স প্রয়োজন ৩ শতাধিক। সেখানে ১৪৫জনের মধ্যে নার্স রয়েছে ১৩১জন। এছাড়া ক্লিনারেরও সংকট রয়েছে। ক্লিনার প্রয়োজন শতাধিক, ৩৬টি পদের মধ্যে রয়েছে ৩৪টি।
কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মোঃ আবু তাহের বলেন, নতুন ১৬৬টি পদের লোকবল নিয়োগ হতে আরো ৩ মাস সময় লেগে যেতে পারে। সৃজন করা পদের জনবল নিয়োগ হলেও সংকট দূর হবে না। কারণ এখানে প্রয়োজন ৯শতাধিক জনবল।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...