আজ বিশ্ব সংবাদপত্র স্বাধীনতা দিবস

এস জে উজ্জ্বল :
বিশ্ব সংবাদপত্র স্বাধীনতা দিবস আজ। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মতো বাংলাদেশেও দিবসটি বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যদিয়ে পালিত হবে। এবার দিবসের প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘তথ্যের স্বাধীনতা জানার অধিকার’। এমন এক সময় এবার বিশ্ব সংবাদপত্র স্বাধীনতা দিবস পালিত হচ্ছে যখন বাংলাদেশের সংবাদ মাধ্যমের ওপর সরকার ও প্রভাবশালী মহলের নানা ধরনের নিপীড়ন-নির্যাতন নেমে এসেছে। বর্তমান সরকারের আমলে গত ১৫ মাসে বাংলাদেশে অন্তত ৫ জন সাংবাদিক নিহত হয়েছেন। সহস্রাধিক সাংবাদিক নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। হামলা মামলা নিয়ে শত শত সাংবাদিককে হয়রানি করা হচ্ছে। সর্বশেষ ঠুনকো অজুহাতে রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের মালিকানাধীন বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ওয়ান-এর সম্প্রচার বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এর আগে সম্প্রচারে যাওয়ার আগমুহূর্তে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে যমুনা টিভির কার্যক্রম। গত সপ্তাহেই সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়ে সিলেটের সাংবাদিক ফতেহ ওসমানী খুন হয়েছেন।
বিশ্ব সংবাদপত্র স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন গতকাল এক বিবৃতিতে বলেছেন, মত প্রকাশের স্বাধীনতা একটি মৌলিক মানবাধিকার। যা সার্বজনীন মানবাধিকার ঘোষণাপত্রের ১৯তম ধারায় স্পষ্টভাবে উল্লেখ আছে। কিন্তু সারাবিশ্বে একে বাধা দান করার জন্য সরকার ও শাসক শ্রেণীর অভাব নেই। তারা নিউজপ্রিন্ট কাগজের ওপর চড়া কর আরোপ করে যাতে সংবাদপত্র প্রকাশ করা প্রচুর ব্যয়বহুল হয়ে উঠে। সরকারের বিভিন্ন নীতির সমালোচনা করার জন্য স্বায়ত্তশাসিত রেডিও ও টিভি চ্যানেলগুলো বন্ধ করে দেয়া হয়। তিনি বলেন, অনেক সাংবাদিক সম্মানহানি ও বন্দি হওয়ার ঝুঁকি নিয়েও কাজ করেন শুধু আমাদের অধিকারকে নিশ্চিত করার জন্য। তারা যেকোনো অবস্থায় বিভিন্ন মাধ্যম থেকে তথ্য সংগ্রহ করার জন্য তাদের জীবনের ঝুঁকি পর্যন্ত নিয়ে থাকেন। তিনি গত বছর বিশ্বে ৭৭ জন সাংবাদিক হত্যার কথা উল্লেখ করে বলেন, জাতিসংঘ সব জায়গায় সব সাংবাদিকের পাশে দাঁড়াতে চায়। আমি আজকে এবং প্রতিদিন সব সরকার, নাগরিক সমাজ এবং সমগ্র পৃথিবীর সবাইকে সংবাদ মাধ্যমের গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলোকে উপলব্ধি করা এবং জানার অধিকারকে নিশ্চিত করার আহ্বান জানাচ্ছি।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...