অনিয়মের সংবাদ প্রকাশের জের, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিক বহিস্কার : শিক্ষার্থীদের ক্লাস বর্জন

CU-2
কামরুল হাসান,কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় :
আওয়ামীপন্থি প্রভাবশালী এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে চাকরী দেয়ার নামে ঘুষ গ্রহনের সংবাদ পত্রিকায় ছাপানোর কারনে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের দৈনিক ইনকিলাবের প্রতিনিধি ও লোক প্রশাসন বিভাগের ২য় ব্যাচের ছাত্র মাসুদ মুন্সীকে এক সেমিস্টারের জন্য বহিস্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। গত বৃহস্পতিবার ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার কামাল উদ্দিন ভূঁইয়া স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে এ কথা জানানো হয়। এ ঘটনার পরেই বহিস্কারাদেশ প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত সকল ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করেছে লোক প্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থীরা।
জানা যায় গত ২৭ মার্চ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকের বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহনের অভিযোগ শীর্ষক সংবাদটি দৈনিক ইনকিলাব পত্রিকায় প্রকাশ হয়। সংবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্সের বিভাগীয় প্রধান কাজী জাহিদুর রহমান দারোয়ান পদে চাকরী দেয়ার নামে স্থানীয় আব্দুস সাত্তারের কাছ থেকে এক লক্ষ টাকা ঘুষ নিয়েছেন বলে আব্দুস সাত্তার অভিযোগ করেন বলে উল্লেখ বরা হয়। অভিযোগকারী আব্দুস সাত্তারের নাম ঠিকানা এবং অভিযুক্ত শিক্ষকের মন্তব্যও ওই সংবাদটিতে ছাপানো হয়। এমনকি অভিযুক্ত ব্যাক্তির ভয়েস রেকর্ডও সাংবাদিকদের নিকট রয়েছে। সংবাদ প্রকাশ করায় পরদিনই কোন প্রতিবাদলিপি না পাঠিয়ে ভিসি ড.আমির হোসেন খান ওই সাংবাদিককে ডেকে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিস্কার করবেন বলে জানান এবং বহিস্কারের জন্য প্রক্টরিয়াল বডিকে প্রয়োজনীয় ব্যরস্থা নিতে বলেন। প্রক্টরিয়াল বডি তাকে দুই দফা জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তার বিরোদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহনের সুপারিশ করে। এরই প্রেক্ষিতে গত ১৭ এপ্রিল ২৫ তম সিন্ডিকেট সভায় তাকে এক সেমিস্টারের জন্য বহিস্কারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। গত বৃহম্পতিবার ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার কামাল উদ্দিন ভুঁইয়া স্বাক্ষরিত অফিস আদেশে তাকে এ নির্দেশ দেয়া হয়।
এদিকে সাংবাদিক এবং লোক প্রশাসন বিভাগের ছাত্রকে বহিস্কারের প্রতিবাদে সকল ক্লাস ও পরিক্ষা বর্জন করেছে ওই বিভাগের শিক্ষার্থীরা। তারা অবিলম্বে বহিস্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবী জানান। অন্যথায় ক্লাস বর্জন অব্যাহত থাকবে, এছারাও আরো বড় আনোদালনে নামবে বলে ওই বিভাগের শিক্ষার্থীরা জানান।
পর্যাপ্ত প্রমানাদিসহ অভিযোগের ভিত্তিতে সংবাদ প্রকাশের কারনে সাংবাদিককে বহিস্কারের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান কুমিল্লা প্রেসক্লাব, বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি কুমিল্লা শ্খা, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি, ফটোগ্রাফার এসোসিয়েশন সহ কুমিল্লা ও কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত সকল প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা। তারা অবিলম্বে কিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে বহিস্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবী জানান।
সাংবাদিককে বহিস্কারের ঘটনায় ক্যাম্পাসে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। একাধিক শিক্ষার্থী ক্ষোভের সাথে জানান, যেখানে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের নাকের ডগায় কর্তৃপক্ষীয় নির্দেশ অমান্য করে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের কর্মীরা শৃংখলা ভঙ্গমূলক কার্যক্রম করে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশকে অস্থিতিশীল করে তুলছে, যাদের কাছে সাধারন শিক্ষার্থীরা জিম্মি হয়ে আছে তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়না। অথচ অভিযোগের প্রমানসহ সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিক বহিস্কার অত্যন্ত নিন্দনীয়।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...