আজ খুলনায় বিএনপির মহাসমাবেশ

khaleda zia
এস জে উজ্জ্বল :
এক যুগ পরে আজ খুলনায় বিএনপির বিভাগীয় মহাসমাবেশ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া। এ উপলক্ষে খুলনাসহ বিভাগজুড়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের মাঝে উত্সবের আমেজ দেখা গেছে। জেলা শহরগুলোর সড়কগুলোকে ব্যানার ফেস্টুন দিয়ে সাজানো হয়েছে। গতকাল বিকালে খুলনার একটি হোটেলে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম অভিযোগ করেন মহাসমাবেশ পণ্ড করতে ক্ষমতাসীন দলের সদস্যদের বিভিন্ন স্থানে হামলার করেছে ।
যাত্রাপুরে বিএনপির ইউনিয়ন সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আকবর আজাদের হাত ভেঙে দিয়েছে ও সমাবেশে গেলে ঘর পুড়িয়ে দেবে বলে হুমকি দিয়েছে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীরা। বাগেরহাটে মিছিলে হামলা করে বিএনপি নেতা রফিকুল ইসলাম ও কাজী সেলিমের মাথা ফাটিয়ে দেয়া হয়েছে। জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী রেজা বাবুর বাড়িতে হামালা ও ভাংচুর করা হয়েছে। সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে যুবদল নেতা মন্টুকে মারধর, কলারোয়ায় ছাত্রদল সভাপতি আকরাম ও আলমগীরের ওপর হামলা করে উল্টো তাদের নামে মামলা দেয়ার চেষ্টা হয়েছে। যশোরের বেনাপোলে পৌর বিএনপির সভাপতি নাজিমউদ্দিনকে মারধর করা হয়েছে। বারোবাজারের যুবদল নেতা মন্টু, শাহীন ও আলিমুর রহমানের ওপর সমাবেশ থেকে ফেরার পথে হামলা করা হয়েছে। এ সময় তিনি ’৭৩ সালের আইন সংশোধন করে মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচার করার জন্য আইনজীবী সমিতি যে আহ্বান জানিয়েছে তার প্রতি সমর্থন জানিয়ে লগি-বৈঠা দিয়ে অমানবিকভাবে যেসব হত্যাকাণ্ড ঘটানো হয়েছিল সেগুলোরও বিচার করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ জানান।
প্রস্তুতি কমিটির সমন্বয়কারী নজরুল ইসলাম মঞ্জু এমপি বলেন, মহাসমাবেশ উপলক্ষে শুধু খুলনা মহানগর ও ৯ উপজেলার জন্য ৬০ হাজার পোস্টার লাগানো হয়েছে। তিনি বলেন, বিদ্যুত্, পানি সমস্যা, আইনশৃঙ্খলার চরম অবনতি, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, টেন্ডার সন্ত্রাস, সরকারি প্রতিষ্ঠানে দলীয়করণসহ সরকারের দেড় বছরের সব ব্যর্থতার চিত্র তুলে ধরে ১০ লাখ লিফলেট ছাপানো হয়েছে; যা এরই মধ্যে নগরীর সাধারণ মানুষের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়া মহাসমাবেশে আগতদের মাঝেও এই লিফলেট বিতরণ করা হবে।
খালেদা জিয়ার ভাষণ শোনার সুবিধার্থে মঞ্চ থেকে ব্যবহৃত মাইক নগরী পিকচার প্যালেস মোড়, পাওয়ার হাউস মোড়, ময়লাপোতা এবং নিউমার্কেট পর্যন্ত বসানো হবে। এছাড়া মহাসমাবেশে খালেদা জিয়ার শোনার জন্য নগরীর মজিদ সরণিতে তিনটি, কেডিএ এভিনিউতে তিনটি, মঞ্চের ডান ও বাম পাশে দুটিসহ ৯টি পয়েন্টে বসানো হবে মাল্টি প্রজেক্টর।
এদিকে সহকারী পুলিশ কমিশনার সিরাজুল ইসলাম বলেন, মহাসমাবেশ উপলক্ষে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। সারাশহর নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা থাকবে। নগরীর মোড়ে মোড়ে ৬ শতাধিক পুলিশ নিয়োজিত থাকবে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...