কুমিল্লায় ভাই ভাই সিএনজি ষ্টেশনের দখলে সওজের ১১ শতক ভূমি

সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী :
কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলা এলাকায় ঢাকা- চট্টগ্রাম মহাসড়কের পার্শ্বস্থ সড়ক ও জনপথ বিভাগের অর্ধ কোটি টাকা মূল্যের ১১ শতক ভূমি দখল করে নিয়েছে ভাই ভাই সিএনজি ষ্টেশনের মালিক জনৈক মফিজুল ইসলাম ।
জানা গেছে, সওজের ভূমি অবৈধ দখলে সবচেয়ে বেশী বিতর্ক সৃষ্টি করেছে মহাসড়কের চট্টগ্রাম অভিমুখে ৮৩তম কিলোমিটারস্থ সদর দক্ষিণ উপজেলায় অবস্থিত ভাই ভাই সিএনজি ফিলিং ষ্টেশন। জনৈক মফিজুল ইসলামের মালিকানায় ভাই ভাই সিএনজি ফিলিং ষ্টেশন ২০০৭ সালের ১৫ আগস্ট অনুমোদন লাভের পর প্রতিশতক ১১৯১ টাকা হারে ২১ দশমিক ৬ শতক সওজের ভূমি বাৎসরিক ভাড়ার ইজারা চুক্তি ২০ আগস্ট সম্পাদিত হয়। পরে সওজের অপরাপর ভূমি দখলে মাটি ভরাট করা হয়। রোড ডিজাইন এন্ড সেফটি সার্কেলের অনুমোদিত নমুনা নকশা অনুযায়ী সার্ভিস রোড নির্মাণ না করে খেয়াল- খুশিমতো কাজ করতে থাকে। এ নিয়ে সওজ কর্মকর্তাদের সাথে মফিজুল ইসলামের বনিবনা না হলে বিরোধ দেখা দেয়। সওজ কর্তৃপক্ষ পরে খোঁজ নিয়ে জানতে পারে সওজের প্রায় অর্ধ কোটি টাকা মূল্যের ১১ শতক ভূমি মফিজুল ইসলামসহ তার তিন ভাই ও পিতা কাজিম আলীর নামে গত বিএস জরিপের সময় গোপনে মালিকানা খতিয়ান সৃজন করা হয়েছে। এদিকে, মফিজুল ইসলাম সওজের চুক্তিমতো বাৎসরিক ইজারা মূল্য পরিশোধ না করায় ’২৭ শতক ভূমি বাৎসরিক ভাড়ার এক লাখ ৯২ হাজার টাকা অভিনব পন্থায় আত্মসাতের প্রতিকার প্রসঙ্গে’ উপ-সহকারি প্রকৌশলীর আবেদনের প্রেক্ষিতে উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী ২০০৮ সালের ১৬ জুলাই নির্বাহী প্রকৌশলী বরাবরে এক পত্র পাঠায়। এ নিয়ে একাধিক চিঠি চালাচালি করলেও এ পর্যন্ত একটি টাকাও সওজ আদায় করতে পারেনি। ওই ১১ শতক ভূমির জরিপ সংশোধন করতে সওজের নির্বাহী প্রকৌশলী ২০০৮ সালের ২২ জুলাই কুমিল্লার জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসারের কাছে একটি মামলা করে। প্রায় দুই বছর সময় পার হতে চললেও এ মামলাটি এখনো নিষ্পত্তি হয়নি।
কুমিল্লা সওজ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ হাফিজুর রহমান জানান, ভাই ভাই সিএনজি ষ্টেশনের দখলে থাকা সওজের ১১ শতক ভূমির বিষয়ে দায়ের হওয়া মামলায় সম্প্রতি চুড়ান্ত শুনানী হয়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...