কুমিল্লায় ভূয়া পিতা সাজিয়ে অর্ধ কোটি টাকার সম্পত্তি রেজিস্ট্রির অভিযোগে কন্যা ও জামাতা গ্রেফতার

দাউদকান্দি প্রতিনিধিঃ
কুমিল্লায় ভূয়া পিতা সাজিয়ে গৌরিপুর সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে অর্ধ কোটি টাকার সম্পত্তির দলিল সম্পাদন ও রেজিস্ট্রি করা হয়েছে। পিতার এমন অভিযোগে ভিত্তিতে শনিবার রাতে দাউদকান্দি থানার পুলিশ প্রতারক কন্যা ও জামাতাকে গ্রেফতার করে গত রোববার দুপুরে আদালতে সোপর্দ করলে তাদের জামিন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ করে।
সূত্র জানায়, জেলার দাউদকান্দি উপজেলায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের গৌরিপুরে পেন্নই মৌজায় ২৫ শতক ভূমির মালিক ছিলেন তিতাস উপজেলার মজিদপুর গ্রামের আঃ হাকিম ফকির। আঃ হাকিম ফকিরের মূল্যবান এ ভূমি আত্বসাৎ করতে ভূয়া পিতা সাজিয়ে ২০০৯ সালের ১৪ জানুয়ারী কন্যা শেফালী আক্তার নিজের নামে দলিল রেজিস্ট্রি করে নেয়। অপরিচিত এক বৃদ্ধার ছবি দলিলে ব্যবহারে রেজিস্ট্রির খবর পেয়ে পিতা হাকিম ফকির জাল ওই দলিলটি সংরক্ষণ করতে কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে আবেদন করে। দলিল সংরণের বিষয়ে নিশ্চিত হয়ে হাকিম ফকির গত ২৬ মার্চ দলিলের গ্রহিতা কন্যা শেফালী আক্তার, স্বামী একই উপজেলার বালুয়াকান্দি গ্রামের আবদুর রশিদের পুত্র জামাতা শাহ্আলম, মনির হোসেন ও দলিল লেখক চান্দিনা উপজেলার রামচন্দ্রপুর গ্রামের আঃ মতিনের বিরুদ্ধে দাউদকান্দি থানায় অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগের প্রেক্ষিতে দাউদকান্দি থানা পুলিশ শনিবার রাতে কন্যা শেফালী আক্তার ও জামাতা শাহ্আলমকে গ্রেফতার করে। দাউদকান্দি থানার অফিসার ইনচার্জ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান প্রতারণার বিষয়টি নিশ্চিত হবার পরই রাতে ওই দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...