মোহাম্মদ ইউসুফ এবং ইউনুস খানকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে আজীবন নিষিদ্ধ করেছে পিসিবি

Mohammad-Yousuf
ক্রীড়া প্রতিবেদক :
‘ইউসুফ এবং ইউনুস দু’জনই আর কখনোই পাকিস্তানের হয়ে কোনো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলতে পারবেন না। তবে তারা ঘরোয়া ক্রিকেটে এবং কাউন্টি ক্রিকেটে খেলার অনুমতি পাবেন’ গত কয়েক বছরে ক্রিকেটারদের বিরুদ্ধে এমন কঠোর ব্যবস্থা আর নেয়নি পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি), যেমনটা কাল নিয়েছে পিসিবি। অস্ট্রেলিয়া সফরে একটি ম্যাচেও না জেতার শোচনীয় পারফরমেন্সের বলি হিসেবে সাত সিনিয়র ক্রিকেটারকে শাস্তি দিয়েছে পিসিবি। পাকিস্তান জাতীয় দলে যে কোনো ফর্ম্যাটের ক্রিকেটে আজীবন নিষিদ্ধ করা হয়েছে দলের দুই শীর্ষ ব্যাটসম্যান, সাবেক দুই অধিনায়ক মোহাম্মদ ইউসুফ এবং ইউনুস খানকে। শোয়েব মালিক এবং রানা নাভেদকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে এক বছরের জন্য। সঙ্গে জরিমানা ২০ লাখ রুপি করে। শহীদ আফ্রিদি এবং কামরান আকমলকে ৩০ লাখ রুপি করে জরিমানা করা হয়েছে। আর কামরানের ছোটভাই উমর আকমলকে জরিমানা করা হয়েছে ২০ লাখ রুপি। একই সঙ্গে ওই তিনজনকে ছয় মাস পিসিবির নজরদারিতে রাখা হবে। এর মধ্যে তারা ফের কোনো বেচাল চাললে আরও কঠোর শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে। কাল এক বিবৃতিতে পিসিবির আইনি উপদেষ্টা তফাজুল রিজভি এ কথা জানান।
younis_khan
কেন ইউসুফ এবং ইউনুসকে এমন কঠিন শাস্তি দেয়া হলো? তার ব্যাখ্যায় জানানো হয়েছে, গোটা অস্ট্রেলিয়া সফরে ইউসুফ এবং ইউনুস একাধিকবার তিক্ত বচসা ও ঝগড়ায় জড়িয়ে পড়েন। এক সময় ব্যাপারটা নিয়মিত হয়ে দাঁড়িয়েছিল। যার কুপ্রভাব পড়েছিল গোটা দলে। তাদের এ নেতিবাচক আচরণ এবং দৃষ্টিভঙ্গি পুরো দলের মনোবল গুঁড়িয়ে দিয়েছিল। পুরোপুরি ভেঙে গিয়েছিল দলের চেইন অব কমান্ড। শেষ পর্যায়ে গিয়ে ঠেকেছিল দলের বিভেদ এবং দলাদলি। একেবারে বেদিশা অবস্থা। এমনি অবস্থায় কোনো দলের কাছ থেকেই সেরাটা আশা করা যায় না। আর তাই তার শতভাগ প্রভাব পড়েছিল পারফরমেন্সে। কোনো জবাবদিহিতা না থাকায় যে যার মতো করে খেলেছে। এমন অবস্থায় দলকে আর কখনোই যাতে পড়তে না হয়, সে কারণেই জাতীয় দলের দরজা চিরতরে বন্ধ করা হলো ইউসুফ এবং ইউনুসের জন্য। তবে আর সব ক্রিকেট খেলতে তাদের কোনো বাধা নেই। যার মানে ক্রিকেট থেকে তাদের আজীবন নিষিদ্ধ করা হয়নি। জাতীয় দল ছাড়া ইউসুফ এবং ইউনুস যে কোনো জায়গায়, যে কোনো প্রতিযোগিতায় খেলতে পারবেন।
দু’দিন আগেই পিসিবির চেয়ারম্যান ইজাজ বাট বলেছিলেন, অস্ট্রেলিয়ায় শোচনীয় পারফরমেন্সের কারণ খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি যে রিপোর্ট দিয়েছে তাতে তিনি বিস্মিত এবং স্তম্ভিত। তদন্ত কমিটির সুপারিশ মানতে গেলে তাকে কিছু কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে সিনিয়র ক্রিকেটারদের বিরুদ্ধে। কিন্তু পাকিস্তান ক্রিকেটের স্বার্থে সেটাই তিনি নেবেন। তখন মালিক, নাভেদ, আফ্রিদি এবং আকমল ভাইদের ব্যাপারে মোটামুটি জানা গেলেও ইউসুফ এবং ইউনুসের ব্যাপারটি নিয়ে বিন্দুমাত্র আঁচ করা যায়নি। তাই পাকিস্তান ক্রিকেটের অন্যতম সেরা দুই ব্যাটসম্যানের নিষিদ্ধ হওয়ার ঘটনাটি ক্রিকেট মহলে আলোড়নই তুলেছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...