দেবিদ্বারে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাছাই কমিটির কার্যক্রম শুরু

ফখরুল ইসলাম সাগর :
দেবিদ্বার উপজেলার প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের যাচাই বাছাই কমিটির কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে দু একটি ইউনিয়নের প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের প্রাথমিক তালিকার কাজ শেষ হয়েছে। গতকাল নতুন করে যারা মুক্তিযোদ্ধা হতে আবেদন করেছেন তাদের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পরীক্ষা নিরীক্ষা ও স্বাক্ষাতকার গ্রহণ করা হয়। উক্ত কার্যক্রমে যাচাই বাছাই কমিটির সভাপতি সাবেক সচিব মোঃ ফজলুল করিম সহ অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সমাজসেবা কর্মকর্তা মোঃ কবির আহম্মদ, যুদ্ধকালীন কমান্ডার সিরাজুল হক ভূইয়া, দেবিদ্বার কমান্ডার মোঃ নজরুল ইসলাম, মুক্তিযোদ্ধা করিম সরকার (সাবেক জেলা রেজিষ্টার), মুক্তিযোদ্ধা আবদুল মতিন সরকার (কমান্ডার), মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হাবিবুর রহমান, যুদ্ধকালীন কমান্ডার আবদুল খালেক, সাবেক দেবিদ্বার কমান্ডার আবদুস সামাদ প্রমুখ। উক্ত যাচাই বাছাই চলাকালীন পৌর এলাকার আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল কাশেম সওদাগরের মুক্তিযোদ্ধা হওয়ার আবেদনের প্রেক্ষিতে প্রশ্নোত্তর পর্বে তাকে জিজ্ঞাসা করা হয় যুদ্ধচলাকালীন আপনাকে দেখলাম না যুদ্ধের পরেও দেখলাম না এতদিন পর আপনি তালিকায় নাম লিখাতে আসছেন কেন? এ বিষয়টি নিয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে বিব্রতকর অবস্থার সৃষ্টি হয়। নাম প্রকাশে অনিছ্ছুক কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধাই সাংবাদিকদের জানান, অনেক রাজাকারই আবেদন করেছে মুক্তিযোদ্ধা হওয়ার জন্য। এখনই কারো বিরুদ্ধে কোন সিদ্ধান্ত নেয়া হবে না। যাচাই বাছাইয়ের পর তাদেরকে আনা হবে। এবিষয়ে আবুল কাশেম সওদাগর যাচাই বাছাই কমিটিকে বলেন, আমি এর আগেও একবার আবেদন করেছি। বিএনপি সরকারের শেষের দিকে আমার আবেদনটি বাতিল করে দেয়া হয়। আমি মুরাদনগরের মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছি। যাদের অধীনে যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছি তাদের ২-১ জনকে স্বশরীরে এখানে আনা হয়েছে। তাদেরকে জিজ্ঞেস করুন। আমি মুক্তিযোদ্ধা কি না? আমি যদি সঠিক কাজ করে থাকি তাহলে আপনারা বিবেচনা করবেন। আমার সব কাগজপত্র আছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...