দেবিদ্বারে বিধবা মহিলাকে শ্বাসরোদ্ধ করে হত্যা

দেবিদ্বারে নিহত বিধবা মহিলা আনোয়ারার লাশের পাশে তার একমাত্র মেয়ে হ্যাপীর আহাজারী।.......................ছবি- কুমিল্লাওয়েব।
দেবিদ্বারে নিহত বিধবা মহিলা আনোয়ারার লাশের পাশে তার একমাত্র মেয়ে হ্যাপীর আহাজারী।.......................ছবি- কুমিল্লাওয়েব।
ফখরুল ইসলাম সাগর,দেবিদ্বার থেকেঃ
দেবিদ্বার পৌর এলাকার উত্তর ভিংলাবাড়ি এলাকার রজ্জব আলী মাস্টারের বাড়ি থেকে ৪মার্চ (বৃহস্পতিবার) সকালে আনোয়ারা বেগম (৪০) নামের এক বিধবা মহিলার লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ।
জানা যায়, দেবিদ্বার পৌর এলাকার উত্তর ভিংলাবাড়ি এলাকার মৃত হাবিবুর রহমানের স্ত্রী আনোয়ারা বেগম (৪০) কে দুরবৃত্তরা বুধবার দিবাগত রাতে তার নিজ ঘরে গলায় টিপে ও বালিশ দিয়ে শ্বাসরোদ্ধ করে হত্যা করে এবং গলায় থাকা স্বর্ণের চেইন, আংটি ও দুটি মোবাইল নিয়ে যায়। সকালে কাজের মেয়ে ঘরে এসে তাকে মৃত দেখতে পেয়ে বাড়ির সকলকে খবর দেয়। বৃহস্পতিবার সকালে খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তার লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুমেক হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে। এ ব্যাপারে নিহতের একমাত্র মেয়ে হ্যাপী আক্তার বাদি হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। দেবিদ্বার থানার মামলা নম্বর ২, তারিখ ৪/৩/২০১০ইং। পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের দেবর মজিবুর রহমান ও তার প্রথম স্ত্রী মমতাজকে আটক করেছে। এলাকাবাসী জানান, নিহত আনোয়ারা বেগমের স্বামী হাবিবুর রহমান গত ৪-৫ বছর পূর্বে মারা যায় এবং দুই ছেলে দুলাল ও ফেরদৌস দীর্ঘ দিন যাবৎ বিদেশে আছেন। একমাত্র মেয়ে হ্যাপী তার স্বামীর সাথে ঢাকায় থাকায় আনোয়ারা একাই বাড়িতে থাকতেন। নিহতের বড় ভাই মোহন মিয়া জানান, বিগত এক মাস পূর্বে আমার বোনের সাথে তার দেবর মজিবুর রহমানের জগড়া হয়, জগড়ার এক মর্যায় আমার বোনকে ল করে মজিব দা ছুড়ে মারে। এ ব্যাপারে দেবিদ্বার থানার ওসি মোঃ জাহেদুল ইসলাম জানান, পারিবারিক কোন্দল বা টাকা পয়সার বিরোধের কারণে হত্যাকান্ডটি হতে পারে এবং জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের দেবর ও তার প্রথম স্ত্রীকে আটক করা হয়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...